পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারপ্রতি লাখ টাকা সহায়তা বিদ্যানন্দের

নিজস্ব প্রতিবেদক : রংপুর জেলার পীরগঞ্জে জেলেপল্লীতে আগুন দেয়া ও লুটপাটের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ২৬টি পরিবারকে পুনর্বাসন করতে নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর মধ্যে নগদ একত্রিশ লাখ টাকা তুলে দিয়েছে বিদ্যানন্দ। এর মধ্যে সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা তুলে দেয়া হয় মাঝিপাড়ার সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেবেন্দ্রনাথের পরিবারকে। সর্বনিম্ন এক লাখ করে টাকা দেয়া হয় একেকটি পরিবারে।

বুধবার (২০ অক্টোবর) স্থানীয় স্কুল মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে ক্ষতির প্রকৃতি অনুসারে সর্বনিম্ন নগদ এক লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সহায়তা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সহায়তা হস্তান্তর করেন রংপুর জেলা প্রশাসক মো. আসিব আহসান।

আরও উপস্থিত ছিলেন রংপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক গোলাম রব্বানী, পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিরোদা রানী রায়, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকরা।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বোর্ড মেম্বার জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, সরকারের পাশাপাশি বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন যে বড় সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে তা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে ঘুরে দাঁড়াতে সহায়ক হবে।

তিনি পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলেন এবং এই টাকা কীভাবে খরচ করবে তার দিকনির্দেশনা দেন। এসময় তিনি বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের ধন্যবাদ জানান।

সভাপতির বক্তব্যে মো. জামাল উদ্দিন বলেন, সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর আর্থিক ক্ষতি হয়তো আমরা পুষিয়ে দিতে পারবো। কিন্তু তাদের হৃদয়ের যে রক্তক্ষরণ সেই ক্ষতি আমরা কোনোদিন হয়তো পুষিয়ে দিতে পারবো না। এজন্য তিনি ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলোর কাছে ক্ষমা চান।

বিদ্যানন্দের হেড অব কমিউনিকেশন সালমান খান ইয়াছিন বলেন, ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় রেখে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন সবসময় গরিব-দুখী মানুষের জন্য কাজ করে।

ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনি একা নন, পুরো বাংলাদেশ আছে আপনার পাশে’ এ বার্তাটিই আমরা পৌঁছে দিতে চেয়েছি। গত দুইদিন আমরা ঘরে ঘরে গিয়ে ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ যাচাই করে ২৬ পরিবারকে নগদ ৩১ লক্ষ টাকা ও ঘরের রান্নার জন্য তৈজসপত্র ও কাপড় দিয়েছি।

বিন্দানন্দ জানায়, এই সহায়তা এ পযন্ত সরকারি-বেসরকারি মিলে সবচেয়ে বড় সহায়তা এবং পুরো টাকাটা দিয়েছেন দেশের ও দেশের বাইরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন এই হামলার শুরু থেকেই এদের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেয়। আগামী দুই দিন রান্না করা খাবার পরিবেশন করবে বলেও ঘোষণা দেয় এই সংগঠনটি।