নেতাকর্মীরা পদত্যাগ করায় এলডিপি মিষ্টি বিতরণ

নেতাকর্মীরা পদত্যাগ করায় এলডিপি মিষ্টি বিতরণ

নিউজ ডেস্ক : কর্নেল অলি আহমদের নেতৃত্বাধীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) থেকে সম্প্রতি দুই শতাধিক নেতাকর্মী পদত্যাগ করেছেন। তাদের পদত্যাগে এলডিপি ‘প্রতারক চক্রের রাহুগ্রাস’ থেকে মুক্ত হয়েছে দাবি করে মিষ্টি বিতরণ করেছেন দলের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার (১৩ মে) সকালে এলডিপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালে এ মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

কুমিল্লার চান্দিনায় এলডিপি মহাসচিব ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদের গাড়িতে হামলা ও তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। গণতান্ত্রিক মহিলা দল এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

মানববন্ধনে এলডিপির যুগ্ম-মহাসচিব বিল্লাল হোসেন মিয়াজি বলেন, যে প্রতারক চক্র আজ এলডিপি থেকে পদত্যাগ করার কথা বলে বেড়াচ্ছে, তারা বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত। তারা দলের প্রধানের সই নকল করে মানুষকে দলের পদ দিয়ে বেড়িয়েছেন। ফান্ড কালেকশনের নামে চাঁদাবাজি, অনুষ্ঠানে খরচের নামে দলের টাকা আত্মসাতে অভিযুক্ত। এ চক্রের অপকর্ম ফাঁস হওয়ায় জনরোষ থেকে বাঁচতে তারা এলডিপি ছেড়েছেন। এ চক্র এলডিপি ছাড়ায় জেলায় জেলায় মিষ্টি বিতরণ চলছে।

গণতান্ত্রিক মহিলা দলের সভাপতি কারিমা খাতুনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট ড. আওরঙ্গজেব বেলাল, অ্যাডভোকেট মাহমুদ মোর্শেদ, ড. নেয়ামুল বশির, উপদেষ্টা অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান, আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল হাসেম, গণতান্ত্রিক যুবদলের আহ্বায়ক আমান সোবহান, গণতান্ত্রিক স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক খালিদ বিন জসিম, ঢাকা মহানগর উত্তর এলডিপির সদস্যসচিব অবাক হোসেন রনি, গণতান্ত্রিক মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ তপতি রানী কর, সহ-সভাপতি উপাধ্যক্ষ শামসুন নাহার সিদ্দিকা, সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা মোমেনা খন্দকার, দক্ষিণের সভাপতি তাহমিনা, উত্তরের সভাপতি নিলা, মহিলা দল নেত্রী আনোয়ারা প্রমুখ।