দুই শিশুকে গলাকেটে হত্যার পর মায়ের ‘আত্মহত্যা’

হবিগঞ্জ ও মাধবপুর সংবাদদাতা : হবিগঞ্জের মাধবপুরে দুই সন্তানকে গলাকেটে হত্যার পর এক মা আত্মহত্যা করেছেন বলে দাবি করছে পুলিশ।

উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের নিজনগর গ্রামে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে কখন এই হত্যার ঘটনাটি ঘটে তা সঠিকভাবে কেউ বলতে পারেনি।

আত্মহননকারী ঘাতক মায়ের নাম হাদিসা বেগম (২৫)। তিনি স্থানীয় ধর্মঘর বাজারের মুদি ব্যবসায়ী আব্দুল মজিদের স্ত্রী। নিহত দুই সন্তানের মধ্যে মিম আক্তারের বয়স আড়াই বছর এবং মোজাহিদুল ইসলাম শুভ’র বয়স ছয় মাস।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কয়েক দিন আগে হাদিসা বেগমের স্বামী তাদের পুরাতন বাড়ির পাশে একটি নতুন বাড়ি নির্মাণ করেন। বর্তমানে তারা ওই বাড়িতেই বসবাস করছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ সময় তাদের কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে হাদিসা বেগমের শাশুড়ি রাজিয়া বেগম পুত্র আব্দুল মজিদের নতুন বাড়িতে যান। এ সময় পুত্রবধূ হাদিসা বেগমকে ঝুলন্ত এবং দুই শিশু সন্তানকে গলাকাটা অবস্থায় দেখতে পান। তার শোর-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে বিষয়টি দেখতে পান এবং পুলিশকে খবর দেন।

হাদিসার স্বামী অন্যান্য দিনের মতো তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ছিলেন। তবে কী কারণে এই ঘটনাটি ঘটেছে তা এখনও কেউ বলতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, বিজয়নগর উপজেলার বুধন্দি ইউনিয়নের কেনা গ্রামের শামীম মিয়ার মেয়ে হাদিসা বেগম এবং আব্দুল মজিদের মধ্যে প্রায় পাঁচ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে এক মেয়ে ও এক ছেলে জন্মগ্রহণ করে।

মাধবপুর থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। পুলিশের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এখন পর্যন্ত এই ঘটনার আসল কারণ জানা যায়নি।

ওসি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি এর পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কি না বা মা-ই দুই সন্তানকে হত্যা করেছে কি না বিষয়টি খতিয়ে দেখার। তবে প্রথামিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মা তার দুই সন্তানকে গলাকেটে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন।