তেজগাঁওয়ে মারামারি ঠেকাতে পুলিশের গুলি, আহত ১৩

রাজধানীর তেজগাঁও পলিটেকনিক্যাল কলেজের ছাতদ্রের সঙ্গে পাশের একটি বস্তিবাসীর সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছে ১৩ জন। মঙ্গলবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে ১০জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হয়েছে।

আহতরা হলেন- মাজহারুল (২১), এস এম শাহজাহান (২৩), রাসেল (১৭), প্রান্তি (২০), রাব্বি (২১), রনি (২২), নাদিম (২০), বাসুদেব (১৮), বাবুল (২১) এবং সাইফুল (২০)। বাকি তিনজনের নাম জানা যায়নি।

ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘আজ মঙ্গলবার বিকালে পলিটেকনিক্যালের কিছু ছাত্র বস্তির ছেলেদের মারধোর করে। পরে বস্তি থেকে তিন-চারশ লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে পলিটেনিক্যালের ছাত্রদের মারতে যায়। এ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে উত্তেজিত বস্তিবাসিরা পুলিশের উপরেও চড়াও হয়। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১০ থেকে ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। এতে কিছু ছাত্র আহত হতে পারে। তবে মারাত্মক কোন জখমের খবর পাওয়া যায়নি।’

কী কারণে গন্ণ্ডগোল- এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মাদক অথবা চুরি সংক্রান্ত ঘটনার জের ধরেই এই মারামারির ঘটনা হতে পারে। তবে পুলিশ বিস্তারিত জানতে কাজ করছেন।