জানুয়ারিতে চট্টগ্রামে পানির দাম বাড়াচ্ছে ওয়াসা

নিউজ ডেস্ক : জানুয়ারিতে পানির দাম বাড়ানো হচ্ছে চট্টগ্রামে। উৎপাদন খরচ সমন্বয় এবং ঋণ পরিশোধের কারণ দেখিয়ে দাম ৫ শতাংশ বাড়ানোর কথা জানিয়েছে ওয়াসা। আগামী বছরের শুরু থেকে আবাসিক ও বাণিজ্যিক উভয় ক্ষেত্রেই বাড়তি দাম কার্যকর হবে।

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির রেশ না কাটতেই চট্টগ্রামে পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়াসা। জানুয়ারি থেকে আবাসিক গ্রাহককে প্রতি ইউনিটে বাড়তি ৯২ পয়সা এবং বাণিজ্যিক গ্রাহককে ১ টাকা ৫২ পয়সা গুনতে হবে।

নগরবাসীর অভিযোগ, ময়লা-দুর্গন্ধযুক্ত পানি সরবরাহ ও চাহিদা মতো পানি সরবরাহ না করতে পারলেও দাম বৃদ্ধিতে বেশি মনযোগী ওয়াসা। তবে, চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহে ব্যর্থ ওয়াসার বছর বছর পানির দাম বাড়ানোকে অযৌক্তিক বলছে ক্যাব।

সেবার মান না বাড়িয়ে বছর বছর পানির দাম বাড়ানোকে অযৌক্তিক বলছে কনজ্যুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)। ক্যাবের কেন্দ্রীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, বিশাল সিস্টেম লস কমানোর দিকে ওয়াসার নজর নেই। সিস্টেম লস এক অংকে নামিয়ে আনতে পারলে পানির দাম বাড়াতে হতো না। এতে সাধারণ গ্রাহকরা সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

তবে, ওয়াসা বলছে, প্রতি হাজার লিটারে উৎপাদন খরচ ১৬ টাকা হলেও বিক্রি ১৩ টাকায়। পাশাপাশি ওয়াসার চলমান বিভিন্ন প্রকল্পে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের কাছে দেনার পরিমাণ বাড়ায় বাধ্য হয়েই দাম বাড়াতে হচ্ছে বলে দাবি সংস্থাটির।

For all latest news; follow EkusherAlo24's Google News Channel

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম ওয়াসার এমডি প্রকৌশলী একেএম ফজলুল্লাহ বলেন, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ আইন-১৯৬৬ এর ২২ (২) ধারা অনুযায়ী প্রতি ইউনিট পানির দাম ৫ শতাংশ বাড়ানোর ক্ষমতা রয়েছে চট্টগ্রাম ওয়াসার। সে অনুযায়ী নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে।

সবশেষ ২০১৯ সালে পানির দাম ৫ শতাংশ বাড়িয়েছিল চট্টগ্রাম ওয়াসা। নতুন দর অনুযায়ী আবাসিকে প্রতি ইউনিটে ১৩ টাকা ৩২ পয়সা এবং বাণিজ্যিকে ৩১ টাকা ৮২ পয়সা দিতে হবে গ্রাহককে।

চট্টগ্রাম ওয়াসার এখন আবাসিক ও বাণিজ্যিক গ্রাহক সংখ্যা যথাক্রমে ৭১ হাজার ৯৯২ ও ৫ হাজার ২৭৩। দৈনিক ৫০ কোটি লিটার চাহিদার বিপরীতে পরিশোধন হয় ৪৫ কোটি লিটার।