চাঁদপুরে বজ্রপাতের আগুনে বসতঘরের সব পুড়ে ছাই

চাঁদপুরে বজ্রপাতের আগুনে বসতঘরের সব পুড়ে ছাই

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ছোট ঝিনাইয়া গ্রামে বজ্রপাতে একটি ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (১৫ জুন) বিকেলে ওই গ্রামের হাবিব খানের বসতঘরে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

তবে অগ্নিকাণ্ডে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এ সময় বাড়িতে থাকা অন্যান্য বাসিন্দাদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মতলব উত্তরে প্রবল ঝড়বৃষ্টির শুরু হয়। এ সময় ছোট ঝিনাইয়া গ্রামের খান বাড়ির হাবিব উল্লাহ খানের ঘরে হঠাৎ বজ্রপাত হয়। এতে সঙ্গে সঙ্গে ঘরটিতে আগুন ধরে যায়। এ সময় ঘরে থাকা হাবিব খান, তার স্ত্রী ও মেয়ে দ্রুত ঘর থেকে বেরিয়ে নিজেদের আত্মরক্ষা করেন। বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা পার্শ্ববর্তী তাদের অন্য একটি দোতলা ঘরে অবস্থান করছিলেন।

 

বজ্রপাতের সঙ্গে সঙ্গে পুরো ঘরেই আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। পরে বাড়ির লোকজন ও আশপাশের লোকজন প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এর কিছুক্ষণ পর মতলব দক্ষিণ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে হাজির হয়।

ঘরের মালিক হাবিব উল্লাহ খান বলেন, ‘ঘরের মধ্যে আমি, আমার স্ত্রী ও ছেলেমেয়েরা বসা ছিলাম। হঠাৎ বিকট শব্দে বজ্রপাত হলে আমরা কোনোরকমে দৌড়ে আত্মরক্ষা করি। মুহূর্তের মধ্যে আগুন সারা ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনে ঘরে থাকা ফ্রিজ, আলমারি, খাট, টিভি, শোকেস, সোফাসহ সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে আমার প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার রবিউল আলম জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে মতলব দক্ষিণ ফায়ার স্টেশনের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু দূরত্ব বেশি হওয়ায় যেতে একটু সময় লাগে। সেখানে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা যাওয়ার আগেই আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। মূলত এ সময় বৃষ্টিপাত হচ্ছিল তাই আগুন ছড়িয়ে পড়েনি।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারি বজ্রপাতে ঘরে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। তবে ওই সময় বিদ্যুৎ ছিল না। বিদ্যুৎ না থাকায় শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হওয়া সম্ভব নয়।