খুলনায় শিশু অপহরণের দায়ে স্বামী-স্ত্রীর ১৪ বছরের কারাদণ্ড

খুলনায় শিশু অপহরণের দায়ে স্বামী-স্ত্রীর ১৪ বছরের কারাদণ্ড

শিশু অপহরণের দায়ে স্বামী ও স্ত্রীকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সোমবার (১ আগস্ট) খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক আ. ছালাম খান এ রায় ঘোষণা করেন। ওই আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. রুবেল খান রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, নগরীর খানজাহান আলী থানা এলাকার অহিদের বাড়ির ভাড়াটিয়া মোমিন সরদার ও তার স্ত্রী রেখা।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ২৪ আগস্ট দুপুরে আসামিরা সুর্বণা নামে তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশুকে অপহরণ করেন। পরিবারের সদস্যরা তাকে বিভিন্ন স্থানে খুঁজে না পেয়ে শিশুর বাবা খানজাহান আলী থানায় মোমিন সরদার ও তার স্ত্রী রেখার বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা করেন।

ঘটনার ছয়দিন পর বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মহাস্থানগড় থেকে পুলিশ রেখাকে গ্রেফতার করে। পরে পুলিশ রেখার দেখানো স্থান থেকে সুর্বণাকে উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রেখা তাকে বেড়ানোর কথা বলে নিয়ে আসেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে সুর্বণাকে তারা একটি কক্ষে আটকে রেখেছিলেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খানজাহান আলী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শেখ আ. রহিম একই বছরের ১৯ নভেম্বর রেখা ও তার স্বামীকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ বিচারকাজ শেষে সোমবার আদালত এই রায় ঘোষণা করেন।