এইচএসসিতে প্রশ্ন ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

শেরপুর সংবাদদাতা : এসএসসির মতো এইচএসসিতেও প্রশ্ন ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শনিবার দুপুরে শেরপুরের নকলা উপজেলার চন্দ্রকোণা রাজলক্ষ্মী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁসের গুজবে কান না দিতে শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদেরকে আহ্বান জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গুজব ছড়ানোর অপকর্মের সঙ্গে কারও সম্পৃক্ততা পেলে তাদের কঠোর আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নে শুধুমাত্র অবকাঠামো নয়, ক্যারিকুলামসহ শিক্ষা পদ্ধতিতেও কিছুটা পরিবর্তন আনা হবে। দেশের শিক্ষার মান উন্নয়নে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে, সেই চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করার জন্য আমরা কাজ করছি। শুধু শিক্ষা ও বিজ্ঞানে নয়, শিক্ষার্থীদের মানবিকভাবেও সমৃদ্ধ হতে হবে। শিক্ষিত তরুণদেরকে দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা বাতিলের কোনো চিন্তা নেই। ফেক আইডিতে অনেক কিছু পোস্ট করা হয়ে থাকে। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তৃতীয় শ্রেণিতে পরীক্ষা উঠিয়ে দেয়ার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিভাগ কাজ করছে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জনতা ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মো. আকরাম হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন কৃষি মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও শেরপুর-২ আসনের এমপি বেগম মতিয়া চৌধুরী, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ডা. মো. মুফাখখারুল ইসলাম, শেরপুরের জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব, সাবেক অধ্যাপক আসাদুজ্জামান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগামী ২ এপ্রিল শুরু হচ্ছে। চলবে ১৩ মে পর্যন্ত।