আজ জিয়াউর রহমানের ৮১তম জন্মবার্ষিকী

আজ জিয়াউর রহমানের ৮১তম জন্মবার্ষিকী

আজ ১৯ জানুয়ারি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮১তম জন্মবার্ষিকী। ১৯৩৬ সালে বগুড়ার গাবতলীর ছায়া সুনিবিড় নিভৃত জনপদ বাগবাড়ীর এক বনেদি মুসলিম পরিবারে জন্ম নেন তিনি। শিক্ষাজীবন শেষে ১৯৫৩ সালে তিনি যোগ দেন তত্কালীন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে। ১৯৭১ সালের ২৭ মার্চ বাঙালি জাতির সংকটমুহূর্তে চট্টগ্রাম কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে তার কণ্ঠে ভেসে আসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা।

একাত্তরের রণাঙ্গনে জিয়াউর রহমান ছিলেন অসম সাহসী। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার হিসেবে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন জিয়াউর রহমান। দায়িত্ব পালন করেন মুক্তিযুদ্ধের একটি স্বতন্ত্র সেক্টরের। তার নামে গড়ে ওঠা জেড ফোর্স রণাঙ্গনে যুদ্ধ করে দু:সাহসিকতায়।

১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর ‘সিপাহী জনতার বিপ্লবের’ মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে অধিষ্ঠিত হন জিয়াউর রহমান। তিনি ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাদাবী দল (বিএনপি) প্রতিষ্ঠা করেন। তার প্রতিষ্ঠিত দল বিএনপি তিনবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সেনাবাহিনীর একটি অংশের অভ্যুত্থানে নিহত হন তিনি।

জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুই দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।  এ উপলক্ষে আজ সকালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে তার সমাধিতে ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবেন। একই দিন দলের প্রধান কার্যালয়সহ দেশব্যাপী দলীয় পতাকা ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। মাজার প্রাঙ্গণে ওলামা দলের উদ্যোগে কোরআনখানি ও মিলাদ মাহফিল, মাজার প্রাঙ্গণে জিসাস আয়োজিত স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ড্যাব-এর উদ্যোগে সকাল ৯ টা হতে বেলা ৩ টা পর্যন্ত নয়াপল্টনস্থ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে “ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প ও বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ” প্রভৃতি কর্মসূচি রয়েছে।