১০১টি জরাজীর্ণ থানার নতুন ভবন তৈরির পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সাতক্ষীরা, ১ এপ্রিল, ২০১৮ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, দেশের ১০১টি জরাজীর্ণ থানার নতুন ভবন তৈরির পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। দেবহাটা থানার নতুন ভবন নির্মাণ তার অন্যতম।
শনিবার সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের উদ্যোগে জেলার দেবহাটা উপজেলার হাইস্কুল মাঠে আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন। সুধী সমাবেশে পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান সভাপতিত্ব করেন।
এর আগে তিনি দুপুর সাড়ে ১২টায় সাতক্ষীরার দেবহাটা থানার নতুন ভবন উদ্বোধন করেন। পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ও করেন।
আসাদুজ্জামান খাঁন এসব অনুষ্ঠানে বলেন, নতুন নির্মিত থানা ভবনে পুলিশের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা ব্যবহারের ব্যবস্থা রয়েছে। পুলিশ দক্ষতা, পেশাদারিত্ব এবং দেশপ্রেমে অনন্য ভূমিকা রাখছে। পুলিশকে জনগণের বন্ধু হতে হবে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে বলেন, মাদক ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স রয়েছে। জঙ্গীবাদ পুরোপুরি নির্মূল হয়নি। তবে জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া কারা চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আদালতের নির্দেশ পেলে জেল কোড অনুযায়ী তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।
রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৫-দফা ও জাতিসংঘের কফি আনান কমিশনের প্রস্তাব বাস্তবায়িত হলে রোহিঙ্গাদের দ্রুত স্বদেশে প্রত্যাবর্তন সম্ভব।
সুধী সমাবেশে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি, সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবি, সংসদ সদস্য রিফাত আমিন, খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহম্মেদ, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুনসুর আহম্মেদ, সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন প্রমুখ।
সাতক্ষীরার দেবহাটা থানার নতুন ভবন উদ্বোধনকালে আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে পুলিশ সন্ত্রাসবাদী ও জঙ্গীবাদী তৎপরতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। দেশের অন্যতম মডেল থানা হিসেবে পুলিশ এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেবহাটা থানার নতুন ভবন উদ্বোধনের পাশাপাশি নারী পুলিশ ব্যারাক ও সাতক্ষীরা শহরকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার কর্মকান্ডও উদ্বোধন করেন।

Inline
Inline