হ্যারি কেনের জোড়া গোলে তিউনিশিয়াকে হারালো ইংল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক : হ্যারি কেনের জোড়া গোলে তিউনিশিয়ার বিপক্ষে জয় পেল ইংল্যান্ড। রাশিয়া বিশ্বকাপে সোমবার দিনের শেষ ম্যাচে তিউনিশিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ইংলিশরা। ম্যাচটিতে জোড়া গোল করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন। ম্যাচের ১১তম মিনিটে প্রথম গোলটি করেন তিনি। এরপর শেষ মুহূর্তে অতিরিক্ত সময়ে তিনি তার দ্বিতীয় গোলটি করে দলকে জয় এনে দেন। তিউনিশিয়ার পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন ফারজানি সাসি।
একই গ্রুপের অন্য ম্যাচে আজ জয় পেয়েছে বেলজিয়াম। পানামাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে তারা। আর আজ দিনের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে সুইডেন।

ইংল্যান্ডের পরবর্তী ম্যাচ আগামী ২৪ জুন। এদিন পানামার মুখোমুখি হবে তারা। এরপর ২৮ জুন বেলজিয়ামের মুখোমুখি হবে তারা। অন্যদিকে, আগামী ২৩ জুন বেলজিয়ামের মুখোমুখি হবে তিউনিশিয়া। এরপর ২৮ জুন টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে পানামার মুখোমুখি হবে তিউনিশিয়া।
আজ ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। ম্যাচের ১১তম মিনিটে দারুণ একটি গোল করেন ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন। অ্যাশলে ইয়ংয়ের কর্নার কিক থেকে হেড করেন জন স্টোন। গোলরক্ষক ক্লাসেন ঝাপিয়ে পড়ে বলটি ক্লিয়ার করে দেয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি সফলভাবে বলটি ক্লিয়ার করতে পারেননি। বল গিয়ে পড়ে গোলের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা হ্যারি কেনের কাছে। তিনি সঙ্গে সঙ্গে শট দিয়ে বল পাঠিয়ে দেন জালে।

এরপর ৩৩তম মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে তিউনিশিয়ার ফখরেদ্দিন বিন ইউসুফকে ফাউল করেন ইংলিশ ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার। পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। আর পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা আনেন ফারজানি সাসি।
১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় ইংল্যান্ড ও তিউনিশিয়া। বিরতির পর দুই দলই গোল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিল ম্যাচটি ১-১ সমতায় শেষ হতে যাচ্ছে। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে তথা (৯০+১) মিনিটে ট্রিপিয়ারের কর্নার কিক থেকে প্রথমে ব্যাক পোস্টের দিকে হেড করেন মাগুইরি। এরপর সেখান থেকে হেড করে বল জালে পৌঁছে দেন হ্যারি কেন।

গত ১৪ জুন রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হয়েছে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। আগামী ২৮ জুন শেষ হবে গ্রুপ পর্বের খেলা। এরপর ৩০ জুন শুরু হবে নকআউট পর্ব। ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ জুলাই।