হুইল চেয়ারে এসে জামিন নিলেন তরিকুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামকে নাশকতার মামলার আসামি করেছে পুলিশ। আর এই আট মামলায় জামিন দিতে তিনি আদালতে যান হুইল চেয়ারে করে।

বুধবার আগাম জামিন নিতে হাইকোর্টে যান তরিকুল। আর বিচারপতি মো. হাবিবুল গণি ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর বেঞ্চ এসব মামলায় পুলিশি প্রতিবেদন দেয়ার আগ পর্যন্ত আগাম জামিন দেন।

গত ১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশকে কেন্দ্র করে পল্টন ও আদাবর থানায় আটটি মামলা হয়। এগুলোতে তরিকুল ইসলাম ছাড়া আসামি করা হয় বিএনপিপন্থী জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদেরও।

আসামিদের মধ্যে তরিকুল ছাড়াও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেনসহ বিএনপির সাত নেতাকে আগাম জামিন দেয়া হয়।

জামিনপ্রাপ্ত অন্য নেতারা হলেন আব্দুর রেজ্জাক খান, নিতাই রায় চৌধুরী, আক্তারুজ্জামান, ফেরদৌস ওয়াহিদা ও তাহেরুল ইসলাম তৌহিদ ও রফিক শিকদার।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন খন্দকার মাহবুব হোসেন ও আমিনুল হক। তাদের সঙ্গে ছিলেন এ কে এম এহসানুর রহমান।

এহসানুর রহমান জানান, গত ১১, ১২, ১৩, ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর বিএনপির মানববন্ধন ও অনশন কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে পুলিশের কর্তব্য ও কাজে বাধা দেওয়া ও নাশকতা চেষ্টার অভিযোগ এনে পল্টন ও আদাবর থানায় পুলিশ বাদী হয়ে এসব মামলা করে।

তরিকুল ইসলামের বিষয়ে আদালত কী বলেছে জানতে চাইলে এই আইনজীবী বলেন, ‘আমরা আদালতে তার সব মেডিকেল রিপোর্টগুলো তুলে ধরেছি, জমাও দিয়েছি। আদালত তখন বলেছেন, আইনজীবীদের তো চার্জশিট না হওয়া পর্যন্ত জামিন দেয়া হয়েছে। আর আসামি তরিকুল ইসলামকে কেমো নিতে হয়। তার অসুস্থতা, বয়স বিবেচনা করে চার্জশিট না হওয়া পর‌্যন্ত জামিন দেয়া হলো।’

Inline
Inline