হরিনাকুন্ডুর আলোচিত শীর্ষ সন্ত্রাসীকে গলা কেটে ও কুপিয়ে হত্যা

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডুর আলোচিত শীর্ষ সন্ত্রাসী বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি ও ছিনতাই মামলার আসামী, নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা আব্দুল কাদের জোয়ার্দার (৬০) ওরফে কসাই কাদেরের গলাকাটা লাশ অবশেষে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় গলা কেটে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে কে বা কাহারা।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় নিহত শীর্ষ সন্ত্রাসী আব্দুল কাদের জোয়ার্দার ওরফে কসাই কাদেরের (৬০) নামে এক ডাকাতি ও ছিনতাই মামলার আসামীকে গলা, হাত ও পায়ের রগ কাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (২৩ মে) বেলা ১২টার দিকে উপজেলার তিওরবিলা গ্রামের মাঠ থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত কাদের ঝিনাইদহ জেলার হরিনাকুণ্ডু উপজেলার তাহেরহুদা গ্রামের মহি জোয়ার্দারের ছেলে। সে বেশ কয়েক বছর যাবত নিজের এলাকা ছেড়ে পলাতক ছিল।
স্থানীয়রা জানায়, বুধবার সকালে তিওরবিলা গ্রামের একটি মাঠে মরদেহটি দেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয় কয়েকজন কৃষক। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, আব্দুল কাদেরের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ থানাসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি ও ছিনতাই মামলা রয়েছে।