সৌদিকে দুটি দ্বীপ দিচ্ছে মিশর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিশর ও সৌদি আরবের মাঝে লোহিত সাগরে অবস্থিত তিরান ও সানাফির দ্বীপ দুটিকে সৌদি আরবের কাছে হস্তান্তরের চুক্তি বহাল রাখার পক্ষে রায় দিয়েছে মিশরের সর্বোচ্চ আদালত। খবর আল জাজিরার।

শনিবার আদালতের রায়ে হয়, সৌদি আরবের কাছে তিরান ও সানাফির দ্বীপ হস্তান্তরের সিদ্ধান্তটি অসাংবিধানিক নয়।

তিরান ও সানাফির দ্বীপদুটি একটি কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ এবং রাজনৈতিকভাবে সংবেদনশীল এলাকায় অবস্থিত। এর নির্দিষ্ট কোনো মালিকানা নেই।

২০১৬ সালে মিশর সফরে গিয়ে কোটি কোটি ডলার বিনিয়োগ ও সল্প সুদে ঋণ প্রদানের ঘোষণা দেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ। এ সময় সৌদি আরবকে তিরান ও সানাফির দ্বীপের মালিকানা হস্তান্তরের ঘোষণা দেন মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসি।

সেসময় ফাত্তাহ বলেছিলেন, ‘রিয়াদ ও কায়রোর মধ্যে স্বাক্ষরিত সমুদ্রসীমা বিষয়ক এক চুক্তিতে তিরান ও সানাফির দ্বীপ দুটি সৌদি জলসীমার মধ্যে পড়েছে।’

তবে প্রেসিডেন্ট সিসির এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রাস্তায় নামে সাধারণ মিশরীয়রা। তারা এ চুক্তির বিরোধীতা করেন। এছাড়া মিশরের দুটি নিম্ন আদালতও সৌদি আরবের সঙ্গে হওয়া এ চুক্তিকে অবৈধ ঘোষণা করে। এরপরই নিম্ন আদালতের ঐ রায়ের বিপরীতে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করে সরকার। সেই আপিলের রায়ে শনিবার নিম্ন আদালদের রায়গুলো নাকচ করে দিয়ে চুক্তির সিদ্ধান্তটি বহাল রাখে সুপ্রিম কোর্ট।

দ্বীপ দুটির হস্তান্তর নিয়ে গত বছর মিশরের পার্লামেন্টে বিতর্ক হয় এবং চুক্তিটির অনুমোদন দেয়া হয়। তার সপ্তাহখানেক পর এতে স্বাক্ষর করেন প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি।

Inline
Inline