সেপটিক ট্যাংকে স্বর্ণ ব্যবসায়ীর খণ্ডিত লাশ

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জে সেপটিক ট্যাংক থেকে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর টুকরো টুকরো লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম প্রবীর চন্দ্র ঘোষ।

নিখোঁজের ২১ দিন পর সোমবার রাতে শহরের আমলাপাড়া এলাকার একটি ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে তার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

প্রবীর ঘোষ নারায়ণগঞ্জ শহরের কালিরবাজার এলাকায় স্বর্ণ ব্যবসা করতেন। তিনি ভোলানাথ জুয়েলার্সের মালিক। গত ১৮ জুন থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। তার সন্ধান দাবিতে ১৮ দিন ধরে বিভিন্ন সময়ে ব্যবসায়ী, নিহতের স্বজন, বিভিন্ন সংগঠন ও পরিবারের লোকজন মানববন্ধন ও সমাবেশ করে আসছিলেন।

প্রবীর নিখোঁজের ঘটনায় তার বাবা ভোলানাথ দাস বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় জিডি করেন। ওই জিডির তদন্ত জেলা গোয়েন্দা পুলিশকে দেয়া হয়। ডিবি পুলিশ বিষয়টির তদন্ত করে পিন্টু ও বাবু নামের দুইজনকে আটক করে। তার মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং ও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে পিন্টু স্বীকার করে প্রবীর ঘোষের বিষয়টি।

পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার রাতে শহরের আমলাপাড়া এলাকার ঠান্ডু মিয়ার ভবনের সেফটিক ট্যাংক থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। কয়েকটি ব্যাগে করে ট্যাংকিতে লাশ টুকরো টুকরো করে রাখা ছিল।

জিডির তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ১৮ জুন সকালে সোনারগাঁও বারদী উদ্দেশ্যে রওনা দেনে স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রবীর ঘোষ। পরে সন্ধ্যা সাতটার দিকে তিনি নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন। রাত ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে তার মোবাইল ফোনে একটি ফোন এলে তিনি বাড়ি থেকে বের হন। পরদিন ১৯ জুন সকালে নিখোঁজ প্রবীর ঘোষের বাবা বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি জিডি করেন।

Inline
Inline