সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে গণতন্ত্র ধ্বংস হবে: ফখরুল

নিজস্ব সংবাদদাতা : অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে না পারলে গণতন্ত্র ধংস হয়ে যাবে বলে বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের বলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রবিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশে বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের সম্মানে আয়োজিত ইফতারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ কথা বলেন ফখরুল। গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিতে এর আয়োজন করা হয়।

ইফতারে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, চীনের রাষ্ট্রদূত জাং জু, সৌদি আরব দূতাবাসের উপ-প্রধান আমির বিন ওমর বিন সালেমসহ বেশ কিছু দেশ ও সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে এবং দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের যুক্তরাজ্যে অবস্থানের কথা তুলে ধরে তাদের পক্ষ থেকে অতিথিদের শুভেচ্ছা জানান ফখরুল।

খালেদা জিয়ার কারাবন্দী অবস্থার কথা তুলে ধরে বিএনপি নেতা বলেন, ‘তিনি (খালেদা জিয়া) একটি পরিত্যক্ত জেলখানার চার দেয়ালের মধ্যে কঠিন সময় পার করছেন। তাকে একটি মিথ্যা বানোয়াট মামলায় বন্দী করে রাখা হয়েছে। তিনি ন্যায়বিচার থেকেও বঞ্চিত।’

ফখরুল বলেন, ‘আমরা এমন একটি সময় এখানে উপস্থিত হয়েছি যখন দেশে আইনের শাসন নেই। ক্রসফায়ারে মানুষ মারা যাচ্ছে, যানজটে মানু্ষের কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। ফলে মানুষের জীবন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। এই অবস্থার উত্তরণ ঘটাতে হবে।’
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বরাবর অভিযোগ করা হয়, বিএনপি দেশের রাজনীতি নিয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ করছে। দেশের মানুষের ওপর আস্থা নেই বলে এই কাজ করে তারা।

এ বিষয়ে ফখরুল সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও আমাদের উদ্বেগ আমরা বিদেশি বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করলেও আমরা বুঝি আমাদের সংগ্রাম নিজেদেরই চালিয়ে যেতে হবে।’

সরকারবিরোধী আন্দোলনে এখন পর্যন্ত ব্যর্থ হলেও সাফল্যের স্বপ্ন ছাড়ছেন না ফখরুল। বলেন, ‘আমরা এও জানি, রবীন্দ্রনাথের ভাষায় যখন মানুষ জেগে উঠবে তখন তাদের রোধ করা যায় না।’

ইফতারের আগে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে এবং খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ওলামা দলের সাধারণ সম্পাদক শাহ নেসারুল হক।