সুন্দরবনে আর কেউ দস্যুতা করলে দমন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাগেরহাট সংবাদদাতা : সুন্দরবনে আর কাউকে দুস্যুতা করতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বলেছেন, আমরা সুযোগ দিয়েছিলাম স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে। যদি কোনো দস্যু বাহিনীর অবস্থান সুন্দরবনে টের পাই তাহলে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করব।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়াম মাঠে বনদস্যুদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় আগে আত্মসমর্পণ করা দস্যুদের পুনর্বাসনের চেকও হস্তান্তর করেন মন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আজকে যে ছয়টি বনদস্যু দল সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করল এরা আধুনিক অস্ত্রের ব্যবহার করত। এলিটফোর্স র‌্যাবের দক্ষতার কারণে আজ সুন্দরবন দস্যুমুক্ত। প্রধানমন্ত্রী আজকে সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত বলে ঘোষণা করেছেন।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন খুলনা সিটি করেপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মোজাম্মেল হোসেন এমপি, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশাসহ প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তারা।

আত্মসমর্পণ করা দস্যুদলগুলো হচ্ছে- আনোয়ারুল বাহিনী, তইবুল বাহিনী, সিদ্দিক বাহিনী, আল আমিন বাহিনী, সাত্তার বাহিনী এবং শরীফ বাহিনী। এই বাহিনীর মোট ৫৪ জন সদস্য ৫৮টি দেশি বিদেশি অস্ত্র এবং ৩৩৫১টি গোলাবারুদ জমা দিয়েছে।