সিনেমার নায়িকারা এখন ওয়েব সিরিজে

বিনোদন প্রতিবেদক : যতই দিন যাচ্ছে ইউটিউবের প্রতি ঝোঁক বাড়ছে দর্শকদের। চাহিদা বাড়ছে ওয়েব সিরিজেরও। বলিউডের অনেক সনামধন্য নায়িকাকে পাওয়া গেছে ওয়েব সিরিজে। সেই পথে হাঁটছেন ঢাকাই সিনেমার নায়িকারাও। সেই ধারাবাহিকতায় ঢাকাই সিনেমায় বেশ ক’জন নায়িকা ওয়েব সিরিজে নাম লিখিয়েছেন। কারও কারও অভিনীত ওয়েব সিরিজ মুক্তি পেয়েছে। কারওটা আছে মুক্তির অপেক্ষায়। এই সময়ে ওয়েব সিরিজে ঝুঁকে পড়া নায়িকাদের নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রতিবেদন।

পপি
চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি বিশেষ বিশেষ দিবসে ছোটপদার্র নাটক টেলিফিল্মে সাধারণত অভিনয়ে দেখা যায়, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পপিকে। এরই মধ্যে ‘সাহসী যোদ্ধা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন। ‘সেভ লাইফ’ ও ‘কাটপিছ’ নামের দুটি চলচ্চিত্রে কাজ করার কথা রয়েছে তার। তবে পপি এখন ওয়েব সিরিজের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। প্রথম বারের মতো অভিনয় করছেন অনন্য মামুনের নিদের্শনায় ‘ইন্দুবালা’ নামক ওয়েব সিরিজে। শুটিংয়ে এরই মধ্যে কলকাতায় অংশ নিয়েছেন পপি। তিনি বলেন, ‘অনলাইন দুনিয়ায় সবাই এখন ওয়েব সিরিজি দেখছে। জনপ্রিয় শিল্পীরাও এতে কাজ করছেন। আমি ইন্দুবালা চরিত্রে এই ওয়েব সিরিজে অভিনয় করছি। ওয়েব সিরিজ হলেও এর উপস্থাপনার ধরন একেবারে সিনেমাটিক। যে কারণে আমি কাজ করে ভীষণ মুগ্ধ। এর আগে এই ধরনের ওয়েব সিরিজ বাংলাদেশে হয়নি। তাই এই ওয়েব সিরিজে আমার কাজ করাটাও গবের্র বটে।
তিশা
চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে প্রথমবার ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেন তিশা। ‘অতঃপর জয়া’ নামের সামাজিক সচেতনতামূলক ওয়েব সিরিজটিতে গৃহিণীর চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। এটি পরিচালনা করেছেন আরিফুর রহমান। এখানে তার সহশিল্পী হয়ে কাজ করেন ফজলুর রহমান বাবু ও মোস্তফা প্রকাশ প্রমুখ। তিশা বলেন, ‘ওয়েব সিরিজ আসলে কখনো করা হয়নি। প্রথমবারের মতো করলাম। অবশ্যই ভালো লেগেছে। এই কাজটা সামাজিক সচেতনতার ওপরে। সবকিছু মিলিয়ে ভালো লেগেছে। গল্পটাও ভালো। কাজটাও ভালো হয়েছে। আমার চরিত্রের নাম জয়া। একজন গৃহিণীর চরিত্র। তবে খুবই মজার চরিত্র।’

পরীমনি
অনেক দিন থেকেই নতুন কোনো সিনেমায় দেখা যায়নি নায়িকা পরীমনিকে। সম্প্রতি তার জন্মদিনের অনুষ্ঠানে নিজেই জানান, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কালজয়ী উপন্যাস ‘শেষের কবিতা’ অবলম্বনে নির্মিত একটি ওয়েব সিরিজে লাবণ্য চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। পরীমনি বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথের উপন্যাসে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি, এ জন্য আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। আমার শিল্পী জীবনের একটি স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে।’ ‘শেষের কবিতা’ নিয়ে ওয়েব সিরিজ প্রযোজনা করছে কলকাতার আড্ডা টাইমস। এর মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। ‘শেষের কবিতা’ নিমার্ণ করবেন বাংলাদেশের নিমার্তা হিমেল আশরাফ। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে ঢাকায় শুরু হবে ‘শেষের কবিতা’র শুটিং।

জলি
চলচ্চিত্রের নায়িকা জলির অভিষেক হয় জাজ মাল্টিমিডিয়ার হাত ধরে। ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র ‘অঙ্গার’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন তিনি। দীঘির্দন আড়ালে থাকার পর সম্প্রতি ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে নিজেকে আবার প্রকাশ করেন জলি। বিগ বাজেটের ওয়েব সিরিজ ‘ফোন এক্স’ এ অভিনয় করেছেন তিনি। এটি প্রযোজনা করেছে ইনোভেট সলিউশন। এতে জলিকে দেখা গেছে কিলার চরিত্রে। এটি নিমার্ণ করেছেন অনন্য মামুন। এদিকে এই ওয়েব সিরিজের অন্যতম অভিনেত্রী জলি বলেন, ‘এতে অভিনয় করার সময় মনে হয়নি আমি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছি। মনে হয়েছে সিনেমায় অভিনয় করছি।’

আঁচল
২০১১ সালে ‘ভুল’ নামের একটি ছবি দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন চিত্রনায়িকা আঁচল। এরপর তার অভিনীত ‘বেইলি রোড’, ‘ভালোবাসার রংধনু’, ‘জটিল প্রেম’, ‘প্রেম প্রেম পাগলামি’, ‘কি প্রেম দেখাইলা’, ‘আজব প্রেম’, ‘হৃদয় দোলানো প্রেম’, ‘স্বপ্ন যে তুই’, ‘ফাঁদ’, ‘কিস্তিমাত’, ‘গুন্ডা : দ্য টেরোরিস্ট’, ‘বোঝে না সে বোঝে না’, ‘এপার ওপার’, ‘মেন্টাল’সহ বেশকিছু ছবি মুক্তি পায়। অনেক দিন ধরেই আঁচল দেখা নেই রূপালী পদার্য়। ছবিতে না দেখা গেলেও এবার তিনি ভিন্নভাবে দশের্কর সামনে হাজির হতে যাচ্ছেন। ‘ইন্দুবালা’ নামে নতুন একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে আঁচল বলেন, ‘এবারই প্রথম ব্যতিক্রমী একটা কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। কাজটি নিয়ে আমি বেশ আশাবাদী। এখানে আমাকে দশর্করা সিআইডি পুলিশের চরিত্রে দেখতে পাবে।’

দিপালী
ছোট পর্দা দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন দীপালি। সেই ধারাবাহিকতায় নাম লিখেয়েছেন চলচ্চিত্রে। ‘পায়রা’ এবং ‘ব্ল্যাকমেইল’ ছবি দুটিতে কাজ করলেও একক নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক হয় সোহেল বাবু পরিচালিত ‘বাজে ছেলে’ ছবিটির মাধ্যমে। এই ছবিতে বিপরীতে ছিলেন বাপ্পি চৌধুরী। এরপর আরও কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এবার তিনি নাম লিখিয়েছে ওয়েব সিরিজে। ‘আঘাত’ নামের একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন দীপালি। জায়েদ রেজওয়ান পরিচালিত এ ওয়েব সিরিজের দৃশ্যধারণের কাজ হয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

বিপাশা কবির
জায়েদ রেজওয়ান পরিচালিত ‘আঘাত’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন বিপাশা কবিরও। শিগগিরই রাশিদ পলাশের নিদের্শনায় ‘পদ্ম পুরাণ’ চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করবেন বিপাশা কবির। বিপাশা কবির অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত সবের্শষ চলচ্চিত্র ‘পাষাণ’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন কলকাতার ওম। একজন নায়িকা হিসেবে বিপাশা কবিরের মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র ছিলো সায়মন তারিকের ‘গুণ্ডামি’। এরপর তাকে নায়িকা হিসেবে আরো দেখা গেছে শাহেদ চৌধুরীর ‘আড়াল’, সোহেল বাবু’র ‘বাজে ছেলে দ্য লোফার’ এবং সায়মন তারিকের ‘ক্রাইম রোড’। মিডিয়াতে বিপাশা কবিরের যাত্রা শুরু একজন লাক্স তারকা হিসেবে ২০০৯ সালে। বিপাশাকে টিভি নাটকে সবের্শষ দেখা যায় ‘প্যাভিলিয়ন’ নাটকে। এরপর টিভি নাটকে তাকে আর দেখা যায়নি। নাটকের পর এবারই প্রথম তাকে ওয়েব সিরিজে দেখা যাবে।