সাড়ে নয়টার পরও কেন্দ্রে ঢুকেছেন পরীক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সারাদেশে একযোগে শুরু হয়েছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীদের হলে ঢোকার নির্দেশনা দেয়া হলেও অনেক কেন্দ্রে কিছু পরীক্ষার্থীকে দেরিতে হলে ঢুকতে দেখা গেছে।

এমনি একটি কেন্দ্র ঢাকার আজিমপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ কেন্দ্র। সেখানে সকাল সাড়ে নয়টার পরও কয়েকজন পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। তিনজন সকাল সাড়ে নয়টা ৪০ মিনিটের দিকে এবং একজনকে নয়টা ৫৫মিনিটের দিকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেখা গেছে। তাছাড়া অধিকাংশ পরীক্ষার্থী যথাসময়েই কেন্দ্রে প্রবেশ করেছেন। এছাড়া রাজধানীর আরও কয়েকটি কেন্দ্রে দেরিতে কিছু পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেখা গেছে। তবে এই সংখ্যাটা অনেক কম।

জানতে চাইলে আজিমপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান জানান, প্রথম দিন হওয়ায় তাদের ঢুকতে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া আমাদের উপর নিদের্শনাও ছিল। সবকিছু বিবেচনায় তাদের প্রবেশ করতে দেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় দিন থেকে দেরি করলে আর কাউকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হবে না।
তবে পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে হলে ঢুকতে হবে এমন নিদের্শনায় অনেক অভিভাবক ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা এই সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলে দাবি করেন। কয়েকজন অভিভাবক জানান, রাস্তায় যে যানজট তাতে দেরি হতেই পারে। দেরি করে আসলে হলে ঢুকতে পারবে না এটা কোনো কথা হলো।

অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, হয়রানি করার জন্য এটা করা হয়েছে। এটা কোনো নিয়ম হতে পারে না। যারা প্রশ্নফাঁস করছে তাদেরকে ধরতে পারছে না আমাদেরকে অযথা হয়রানি করা হচ্ছে।

প্রশ্নপত্র ফাঁসের ব্যাপারে জানাতে চাইলে আজিমপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ জানান, ‘আমাদের কেন্দ্রে এখন পর্যন্ত প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
এদিকে পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে ঢাকার গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল পরিদর্শনে যান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

পরীক্ষার সময়সূচি অনুযায়ী আজ প্রথম দিন এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথমপত্র, সহজ বাংলা প্রথমপত্র এবং বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংষ্কৃতি বিষয়ের পরীক্ষা চলছে।

মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে দাখিলে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে এসএসসি ভোকেশনালে বাংলা-২ (১৯২১) বিষয়ের পরীক্ষা দিচ্ছে শিক্ষার্থীরা।

এবারের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে। এরমধ্যে ১০ লাখ ২৩ হাজার ২১২ জন ছাত্র এবং ১০ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭ ছাত্রী। মোট ৩ হাজার ৪১২টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।