সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করতে সম্মিলিত উদ্যোগ অনস্বীকার্য: রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সামাজিক সেবার পরিধি বৃদ্ধিসহ সুখীসমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠন ও সংস্থাকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। জাতীয় সমাজসেবা দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার এক বাণীতে এ আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা অর্জনসহ জনগণের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করতে সম্মিলিত উদ্যোগ অনস্বীকার্য।

তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠন, দুস্থ ও অসহায় মানুষের সেবা নিশ্চিতকরণ এবং সামাজিক নিরাপত্তা জোরদারকরণে বিভিন্ন কল্যাণধর্মী কর্মসূচি গ্রহণ করে দূরদর্শিতার স্বাক্ষর রাখেন। এরই ধারাবাহিকতায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন সমাজসেবা অধিদফতর সামাজিক নিরাপত্তা বলয় সুদৃঢ়করণসহ সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সমাজসেবা অধিদফতর দেশের অনগ্রসর, অসহায় ও দুস্থ প্রবীণ জনগোষ্ঠীর কল্যাণ, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়ন এবং সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের অধিকার রক্ষা, উন্নয়ন ও সামাজিক নিরাপত্তা বিধানকল্পে বহুমাত্রিক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। এ লক্ষে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ‘জাতীয় সমাজসেবা দিবস’ উদ্যাপন একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও অগ্রগতির মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে। আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে অর্জিত হচ্ছে নানা সাফল্য। এ অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিতে নারী-পুরুষের সম্মিলিত প্রয়াস অপরিহার্য। এ পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় সমাজসেবা দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য ‘নারী-পুরুষ নির্বিশেষ, সমাজসেবায় গড়বো দেশ’ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার আলোকে যথার্থ হয়েছে। বাসস