সাতক্ষীরায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাসহ ৭৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : সাতক্ষীরার দক্ষিণ পলাশপোল এলাকায় নাশকতার পরিকল্পনা ও ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব ও জেলা বিএনপির সভাপতি রহমতুল্লাহ পলাশসহ ৭৭ জন জামায়াত-বিএনপির নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

সদর থানার উপপরিদর্শক কবির হোসেন বাদী হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় এই মামলা দায়ের করেন।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শুক্রবার সকালে দক্ষিণ পলাশপোলের প্রাণসায়ের খাল সংলগ্ন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলামের বাড়ির সামনে ৭০/৮০ জন বিএনপি-জামায়াতের সশস্ত্র নেতাকর্মী আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বানচাল করার অভিপ্রায়ে জড়ো হন। তারা সমবেত হয়ে সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র করাকালে পুলিশ সেখানে হাজির হলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। পুলিশও পাল্টা লাটিচার্জ করলে নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এসময় সেখান থেকে সদর থানার ভোমরা ইউনিয়ন জামায়াতের সভাপতি ওবায়দুল্লাহসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। অন্যরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় উপপরিদর্শক কবীর হোসেন বাদী হয়ে ৭৭ জন বিএনপি ও জামায়াত নেতাকর্মীর নামে শুক্রবার মামলা করেছেন।

জেলা বিএনপির সভাপতি রহমতুল্লাহ পলাশ জানান, তিনি ঈদের আগে থেকেই ঢাকাতে অবস্থান করছেন। অথচ সাতক্ষীরায় তার নামে মামলা হচ্ছে। যেটা হাস্যকর ও বিএনপি নেতা-কর্মীদের কোণঠাসা করার পাঁয়তারা বলে মনে করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব জানান, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সারাদেশে চলমান আন্দোলন বানচাল করতে বিএনপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে গণহারে মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। তিনি সদর থানায় দায়েরকৃত মামলার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

Inline
Inline