সম্মেলনের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে হট্টগোল, গেট ভাঙচুর

রহিম রেজা, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি: ঝালকাঠির রাজাপুরে পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সম্মেলনের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে হট্টগোল, উত্তেজনা, অনুষ্ঠান উপলক্ষে তৈরি করা গেট ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে উপজেলা কেন্দ্রীয় হরিসভা মন্দির চত্ত্বরে আয়োজিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে কোন হতাহত ও আটকের ঘটনা ঘটেনি।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার বিকেলে রাজাপুরে পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সম্মেলনের আয়োজন হয়। এতে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনের এমপি বিএইচ হারুন প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এবং হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের জেলা সভাপতি চন্দ্র শেখর হালদার সভাপতিত্ব করেন। সভা শেষে অনুষ্ঠানের সভাপতি চন্দ্র শেখর হালদার হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা কমিটির সভাপতি হিসেবে জয়রাম তেওয়ারির নাম ঘোষণা করা হলেই অপর সভাপতি প্রার্থী গৌরাঙ্গ লাল সাহার সমর্থকরা হট্টগোল শুরু করে বিভিন্ন শ্লোগান দিয়ে সম্মেলন পন্ড করে অনুষ্ঠানের মূল ফটকের গেট ভাঙচুর করে। পরে পরিস্থিতি শান্ত হলে উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামান, চন্দ্র শেখর হালদার, পূজা উদযাপন পরিষদের জেলা সাধারন সম্পাদক তরুন কর্মকারসহ নেতৃবৃন্দরা মিলে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার সভাপতি হিসেবে জয়রাম তেওয়ারি ও সাধারন সম্পাদক হিসেবে নিত্যানন্দ সাহার নাম ঘোষণা করা হয়।

রাজাপুর থানার ওসি শামসুল আরেফিন জানান, পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে, তবে কোন হতাহত বা আটক হয়নি এবং এ ঘটনায় কোন অভিযোগও দেয়নি। অনুষ্ঠানের সভাপতি চন্দ্র শেখর হালদার জানান, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মনোনিতের জন্য উপস্থিতিরা হাত উত্তোলনের মাধ্যমে তাদের সমর্থন জানায়। এতে জয়রাম তেওয়ারি ১৩২ জনেরও বেশি লোকের সমর্থন পান এবং গৌরাঙ্গ লাল সাহা পান ৪৩ জনের সমর্থন। এ সকলের এ মতামত ঘোষনা করা হলেই কয়েকজন লোক বিশৃঙ্খলা শুরু করে, পরে তা শান্ত করে সভাপতি ও সেক্রেটারির নাম ঘোষনা করা হয়।