সন্ত্রাস দমন কার্যক্রম জোরদারে ঢাকায় কাউন্টার টেররিজম কেন্দ্র হচ্ছে

ঢাকা, ৫ এপ্রিল, ২০১৮ : সরকার সারাদেশে সন্ত্রাস দমন কর্মকান্ড আরো জোরদার করতে রাজধানী ঢাকায় কাউন্টার টেররিজম এন্ড ট্রান্স-ন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) সংক্রান্ত একটি কেন্দ্র স্থাপনের কার্যক্রম শুরু করেছে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বুধবার  বলেন, বাংলাদেশ এ দেশের মাটি থেকে সন্ত্রাসী, জঙ্গি ও অপরাধীদের নির্মূল করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। আর তাই আমরা সন্ত্রাস দমন কার্যক্রম আরো জোরদারে সিটিটিসি সেন্টার স্থাপন করতে যাচ্ছি।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার এরই মধ্যে অপরাধ ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে। এর সাথে সঙ্গতি রেখে সন্ত্রাসবাদ, উগ্রবাদ, সাইবার ক্রাইম মোকাবেলা এবং সাইবার নজরদারি জোরদারে সিটিটিসি গঠন করা হয়েছে।
তিনি জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন জননিরাপত্তা বিভাগ এ লক্ষ্যে ‘স্টাব্লিশমেন্ট অব কাউন্টার টেররিজম এন্ড ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইম প্রিভেনশন সেন্টার অব বাংলাদেশ পুলিশ’ শীর্ষক একটি খসড়া প্রকল্প প্রস্তুত করেছে এবং বিবেচনার জন্য সেটি পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে।
পরিকল্পনা কমিশনের একজন কর্মকর্তা জানান, ‘বাংলাদেশ পুলিশ ও গণপূর্ত অধিদপ্তরকে যৌথভাবে আনুমানিক ৬১৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষ এ প্রকল্প বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, রাজধানীর শেরেবাংলানগরস্থ এফ ব্লকে সম্পূর্ণ সরকারি ব্যয়ে এ কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হবে। খসড়া প্রস্তাব অনুযায়ী এ কেন্দ্র স্থাপনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে উন্নত তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সুবিধা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে সরকারের জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ বিরোধী অভিযান আরো বেগবান করা।
প্রস্তাবে বলা হয়, এ কেন্দ্র স্থাপন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইন পোর্টাল নজরদারির মাধ্যমে জঙ্গিবাদ সংক্রান্ত প্রপাগান্ডা নিয়ন্ত্রণ এবং দ্রুত জঙ্গি কর্মকান্ড শনাক্তকরণে সহায়ক হবে।
পরিকল্পনা কমিশনের অপর এক কর্মকর্তা জানান, এ কেন্দ্র সিটিটিসি ইউনিটের তৎপরতা জোরদারে প্রভূত সহায়ক হবে এবং এটি দেশে ও দেশের বাইরে সন্ত্রাস দমন কার্যক্রম জোরদারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

Inline
Inline