‘ষাটগম্বুজ মসজিদ ও সুন্দরবনকে এখনো আমরা পর্যাটনের বিকাশ ঘটাতে পারিনি’

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সচিব মো. মহিবুল হক বলেছেন, বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ ও ম্যানগ্রোব সুন্দরবনকে এখনো আমরা পর্যাটনের বিকাশ ঘটাতে পারিনি।
তিনি আরও বলেন, পর্যটন শিল্পে বিকাশ ঘটাতে আমাদের মাষ্টার প্লান অনুযায়ী আরো নানামুখি উদ্যোগ রয়েছে। এর মধ্যে সুন্দরবন সন্নিহিত তিন জেলায় আরো ‘৬টি বিশেষ পর্যটন কেন্দ্র’ গড়ে তোলার কাজ শুরু হয়েছে।
সুন্দরবনের কোল ঘেঁষা খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলায় এ বিশেষ পর্যটন এলাকা তৈরি করে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা হবে। যাতে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট সুন্দরবনকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে পারি বলে জানান পর্যটন মন্ত্রণালয় সচিব। এর আগে বাগেরহাটের বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ ও ঘোড়া দিঘি পরিদর্শন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সচিব মো. মহিবুল হক
শুক্রবার দুপুরে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক এর সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বাগেরহাটের পর্যটন শিল্পের বিকাশ, সমস্যা, সম্ভবনা ও চ্যালেঞ্জ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় পর্যটন সচিব আরও বলেন, সুন্দরবন ও বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ কেন্দ্রিক পর্যটন বিকাশে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে সরকারের নানা পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়াও দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকে নেওয়া হবে সবধরনের উদ্যোগ।
সভায় বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, মোড়েলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শা-ই আলম বাচ্চু, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি আহাদ উদ্দিন হায়দার, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভিন, ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শেখ আকতারুজ্জামান বাচ্চু, বাগেরহাট প্রতত্তত্ব অধিদপ্তরের কাষ্টোডিয়ান গোলাম ফেরদাউস বাগেরহাট চেম্বার অফ কমার্চের সভাপতি শেখ লিয়াকত আলী লিটন, বাগেরহাট জেলা মৎস কর্মকর্তা সানজিদা হক, সাংবাদিক আহসানুল করিম, ইয়ামীন আলী, সামছুর রহমান প্রমুখ।
এছাড়াও সভায় সাংবাদিক, জন-প্রতিনিধি, এনজিও কর্মী ও বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময়ে অংশগ্রহণকারীরা পর্যটনে সম্ভাবনাময় এই বাগেরহাটকে গুরুত্ব দিয়ে আরও বেশি পর্যটকবান্ধব করে গড়ে তুলতে সচিবকে অনুরোধ করেন। এছাড়াও পর্যটন শিল্পের বিকাশে অতিদ্রুত বাগেরহাটের খানজাহান আলী বিমানবন্দর চালু করার দাবিও জানান বক্তারা।