শৈলকুপায় “গোলাগুলিতে” মাদক ব্যবসায়ী লিটন নিহত

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার বড়দা জামতলা নামক স্থানে মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে “সংঘর্ষে” রফিকুল ইসলাম লিটন (৩৬) নামে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া গেছে। সে শৈলকুপার শেখপাড়া এলাকার মোল্লাপাড়ার সাকিম মোল্লার ছেলে। শনিবার দিনগত রাত দুইটার দিকে শৈলকুপা উপজেলার বড়দা জামতলা গোরস্থানের পাশে কথিত এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
শৈলকুপা থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, রাত দুইটার দিকে মাদক ব্যবসার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। এতে ওই যুবক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তিনি বলেন, মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে গুলি বিনিময়ের পর ঘটনাস্থলে একটি লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে দেখতে পায় ১টি ওয়ান শুটারগান, ইয়াবা ও ফেনসিডিল পড়ে আছে। নিহত যুবক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে পুলিশ জানায়। স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, রাত ১টার পর থেকেই বড়দা জামতলা এলাকায় গুলির শব্দ শুনতে পারেন তারা। পরে একজনের লাশ পড়ে থাকার খবর ছড়িয়ে পড়ে। রোববার সকালে স্বজনরা গুলিবিদ্ধ লাশটি লিটনের বলে সনাক্ত করে। পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, লিটন এলাকা ছেড়ে শান্তিডাঙ্গা এলাকায় পালিয়ে ছিল। তার বিরুদ্ধে শৈলকুপা ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। সে এলাকার একজন শীর্ষ স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী ছিল। এদিকে, মাদক বিরোধী অভিযানের পর পুলিশের তালিকা ভুক্ত শৈলকুপা শেখপাড়া বাজারের সবচে বড় মাদক ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন, বকুল জোয়ারদার ও শিকদার হোসেন গা ঢাকা দিয়েছে। তারাই মুলত ওই এলাকার বড় ব্যবসায়ী বলে অভিযোগ রয়েছে। উল্লেখ্য, এই নিয়ে গত ৫ দিনের ব্যবধানে কালীগঞ্জের মাদক ব্যবসায়ী ছব্দুল মন্ডল ও শৈলকুপার লিটন নিহত হল।

Inline
Inline