শেরেবাংলার সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ খেললে আরো ভালো হতো: পাপন

শহীদ মুস্তাক স্ট্যান্ডের নিচে গ্রাউন্ডসম্যানদের একটা রুম আছে। তার সামনেই সিঁড়িতে বসে মাশরাফি বিন মুর্তজা, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। টিভি ক্যামেরায়ও দেখালো ক্ষণিকের জন্য শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়ে ম্যাচের দর্শক বনে যাওয়া তিন টাইগারকে। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রতিপক্ষদের পরখ করার বাইরেও মাশরাফি-মুশফিকদের ম্যাচটা দেখার আলাদা কারণও ছিল।

এই ম্যাচ দিয়েই গতকাল দেশের প্রধান ক্রিকেট ভেন্যু মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম ওয়ানডে আয়োজনের ‘সেঞ্চুরি’ পূর্ণ করেছে। আক্ষেপের বিষয় হলো এমন উদযাপনের মাহেন্দ্রক্ষণে প্রিয় মাঠের ২২ গজে লড়াইয়ের সুযোগ পেল না বাংলাদেশ দল। তাদের অনুপস্থিতিতে শেরেবাংলার গ্যালারিও খাঁ খাঁ করেছে। টাইগারদের অনেক সাফল্যের মঞ্চ হয়ে থাকা শেরে বাংলায় গতকাল সর্বসাকুল্যে শ’দুয়েকের বেশি দর্শকও আসেননি!

নাজমুল হাসান পাপনের নেতৃত্বাধীন বিসিবি গত এক বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলের দুটি মাইলফলক অর্জনের ম্যাচে অপরিপক্বতার পরিচয় দিয়েছে। গতকাল দ্বিতীয়টি। তার আগে গত বছর মার্চে নিজেদের শততম টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার মাটিতে। যা আয়োজন করা যেত দেশের মাটিতে। ক্রিকেট জাতি হিসেবে উৎসবের এমন উপলক্ষ ঘরের মাঠে উদযাপনের সুযোগ পায়নি দেশের অগুনতি ক্রিকেটপ্রেমীরা।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের এসব সূচি নির্ধারণে যুক্ত থাকে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি। যে বিভাগ পরপর দু’বার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অবশ্য স্বীকার করেছেন, এই ম্যাচে বাংলাদেশকে রেখেই আয়োজন করা যেত। তিনি বলেছেন, উদযাপনের চেয়ে চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ই বিসিবির মূল টার্গেট।

এসব মাইলফলক সম্পর্কে বিসিবির সংশ্লিষ্ট বিভাগ আরও মনোযোগী হওয়া উচিত কিনা জানতে চাইলে বিসিবি সভাপতি গতকাল বিকেলে বলেছেন, ‘এই জায়গায়টায় যদি আমাকে বলেন, আসলে আমার কাছে ধরেন একেক সময় একেকটি খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়। এ মুহূর্তে আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে এ সিরিজ জেতা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত কখনো কোনো ত্রিদেশীয় বা একাধিক টিম যেখানে আছে, এরকম কোনো টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়নি। এবার আমাদের সামনে একটা সুযোগ আছে। আমরা এশিয়া কাপের ফাইনালে গিয়েছি, গিয়ে অল্পের জন্য মাত্র ২ রানের জন্য জিততে পারিনি। এটা আমাদের একটা ক্ষোভ আছে। এবার একটা সুযোগ আছে আমাদের। আমরা চেষ্টা করব, এই বছরটা যদি আমরা শুরু করতে পারি চ্যাম্পিয়ন হয়ে তাহলে এর চেয়ে সুন্দর জিনিস আর কিছু হয় না। তাই মূল মনোযোগ এ সিরিজে শুধুই চ্যাম্পিয়ন হওয়া।’

ক্রিকেট দুনিয়ার পঞ্চম ও দ্রুততম হিসেবে ওয়ানডে আয়োজনের সেঞ্চুরি করেছে শেরে বাংলা। তাতে খুশি বিসিবি সভাপতি। শেরেবাংলার শততম ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে রাখলে ভালো হতো কিনা প্রশ্নে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এটা, এক দিকে বলতে পারেন। আজকের (গতকাল) এই শততম ওডিআইতে আমরা বাংলাদেশের খেলাও রাখতে পারতাম। এটা ঠিক আছে। তবে বাংলাদেশ খেললে আরও ভালো হতো অবশ্যই।’