শুধু সার্টিফিকেট অর্জনের জন্য উচ্চশিক্ষা নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলভাবে চিন্তা করতে হবে এবং উদ্ভাবনী শক্তি কাজে লাগাতে হবে। সৃজনশীল দৃষ্টিভঙ্গি ও উদ্ভাবনী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে নতুন জ্ঞান সৃষ্টির মাধ্যমে নিজেদের সমস্যাগুলো সমাধান করতে হবে। সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে প্রয়োজনীয় গবেষণার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি।শুক্রবার রাজধানীর সোবহানবাগে ড্যাফোডিল টাওয়ারে দুই দিনব্যাপী ‘ইনোভ্যাটিভ টিচিং অ্যান্ড লার্নিং এক্সপো-২০১৭’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ড্যাফোডিল এডুকেশন নেটওয়ার্ক ও ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির উপাচার্য ড. মুনাজ আহমেদ নুর, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. ইউসুফ এম ইসলাম, এনসিসি এডুকেশন ইউকে’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এলাননরটন এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের কালচারাল সেন্টারের প্রধান সারওয়াত রেজা বক্তব্য দেন।শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শুধু সার্টিফিকেট অর্জনের জন্য উচ্চশিক্ষা নয়। এখানে একটি বড় পরিবর্তন আনতে হবে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষার্থীদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। শিক্ষা শুধু শ্রেণিকক্ষে সীমাবদ্ধ রাখলে চলবে না। দেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য নতুন প্রজন্মকে প্রস্তুত করতে হবে। নতুন জ্ঞান অনুসন্ধান করতে হবে। এজন্য ইনোভেটিভ টিচিং ও লার্নিং গুরুত্বপূর্ণ।নাহিদ বলেন, ‘আমরা চিরকাল শুধু জ্ঞান ও প্রযুক্তি আমদানিকারক থাকব না। আমাদের নতুন প্রজন্ম বিশ্বমানের মেধার অধিকারী। তারা একদিন জ্ঞান ও প্রযুক্তি রপ্তানি করবে’। তিনি বলেন, মানবসম্পদ গড়ার ওপর আমরা জোর দিচ্ছি। সেজন্য কারিগরি শিক্ষার প্রসারে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।অনুষ্ঠানে ইনোভেটিভ টিচিং-এর জন্য দু’জন প্রতিযোগীকে পুরস্কৃত করা হয়। মোট ৫৮টি ইনোভেটিভ টিচিং প্রকল্প প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। আগামীকাল শনিবার শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ইনোভেটিভ লার্নিং প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা করা হবে।