শিক্ষাকে শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে আনার তাগিদ দুদক চেয়ারম্যানের

নিজস্ব সংবাদদাতা : শিক্ষাকে পণ্য হিসেবে বিক্রির পথ চিরতরে রুদ্ধ করতে শ্রেণিকক্ষের শিক্ষা শ্রেণিকক্ষেই ফিরিয়ে আনতে হবে বলে মনে করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। বলেন, ‘বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় তরুণ প্রজন্মকে মানসম্মত শিক্ষার মাধ্যমে মানবসম্পদে পরিণত করা না গেলে ডেমোগ্রাফিক ডেভিডেন্ড থেকে বঞ্চিত হতে পারে।’

বুধবার সকালে যশোর সার্কিট হাউস মিলনায়তনে খুলনা বিভাগের শ্রেষ্ঠ দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটিসমূহের মাঝে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন।

সম্মিলিতভাবে শিক্ষাক্ষেত্রে অনিয়ম-দুর্নীতি দূর করে শিক্ষাকে বিকশিত করতে হবে বলে মনে করেন দুদক চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘জাতি গঠনের অন্যতম উপাদান হচ্ছে মানসম্মত শিক্ষা। একমাত্র শিক্ষাই পারে সমাজের মূল্যবোধকে জাগ্রত করতে। মানুষ শিক্ষিত না হলে তাদের অধিকার সম্পর্কেও সচেতন হতে পারে না, অর্থাৎ সুনাগরিক সৃষ্টির লক্ষ্যে শিক্ষার বিকল্প নেই।’

এক্ষেত্রে শিক্ষকদের নিঃস্বার্থ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে দুদক প্রধান বলেন, ‘সমাজের সবচেয়ে সম্মাননীয় অংশ শিক্ষকরা। তাই তাদের মর্যাদা, বেতন-ভাতা এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা আরও বাড়ানো যেতে পারে। তবে শর্ত থাকতে হবে যে, শ্রেণি কক্ষের শিক্ষা শ্রেণিকক্ষেই ফিরিয়ে আনতে হবে।’

‘কোচিং বাণিজ্য কিংবা অন্য কোনো নামে শিক্ষাকে পণ্য হিসেবে বিক্রির পথ চিরতরে রুদ্ধ করতে হবে। প্রয়োজনে আইন করে কোচিং বাণিজ্য চিরতরে বন্ধ করতে হবে।’

দুর্নীতি রোধ, সুশাসন, ন্যায়বিচার, নাগরিক অধিকার, দারিদ্র বিমোচনসহ অধিকাংশ সমস্যাই কেবল শিক্ষার মাধ্যমেই দূর করা সম্ভব বলে মনে করছেন ইকবাল মাহমুদ। ‘রাষ্ট্রের সর্বশ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ হিসেবে শিক্ষাক্ষেত্রে বিনিয়োগ হতে হবে দুর্নীতিমুক্ত এবং দৃষ্টান্তমূলক।’

দুদক শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি ন্যূনতম প্রশয় দেবে না বলে তিনি জোর দাবি করেন।

তিনি দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা স্বেচ্ছাসেবী মানসিকতাকে লালন করেন বলেই বিনা অর্থে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে দুর্নীতি প্রতিরোধ ও উত্তম চর্চার বিকাশে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। এটা একটা স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ।’

জনগণের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ এবং সমর্থন ছাড়া দুর্নীতি প্রতিরোধের কোনো পথ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, গণমাধ্যম, সুশীল সমাজসহ সবাইকে দুর্নীতি প্রতিরোধে সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।