শিক্ষকদের পিটুনি মারধর গলাধাক্কা : আর কি বাকি রাখলো ছাত্রলীগ

bsl terroristsসম্পাদকীয় : শিক্ষকদের পিটুনি মারধর গলাধাক্কা, আর কি বাকি রাখলো ছাত্রলীগ?

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছেন ছাত্রলীগ কর্মীরা। এ সময় ছাত্রলীগ কর্মীরা শিক্ষকদের ওপর চড়াও হয়ে তাদের মারধর করেছে।
মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক সৈয়দ সামসুল ইসলাম ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মারধরের শিকার হয়েছেন বলে দাবি করেন।
রোববার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি ছিল শিক্ষকদের। কয়েক মাস ধরেই শিক্ষকরা আন্দোলন করে আসছিলেন।
রোববার বেলা ৩টায় উপাচার্য আমিনুল হক ভূঁইয়া একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠক ডাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
শিক্ষকদের কর্মসূচির পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্যকে সমর্থন দিয়ে আসা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ভোর সাড়ে ৫টার দিকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেন। আর আন্দোলনরত শিক্ষকরা ব্যানার নিয়ে সেখানে যান সকাল সাড়ে ৭টার দিকে। পরে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপাচার্য প্রশাসনিক ভবনের সামনে এলে ছাত্রলীগ কর্মীরা আন্দোলনরত শিক্ষকদের কাছ থেকে ব্যানার কেড়ে নেন। এ সময় শিক্ষকদের গলাধাক্কা ও মারধর করে সরিয়ে দেন ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। এরই ফাঁকে উপাচার্য প্রশাসনিক ভবনে ঢুকে নিজের কার্যালয়ে চলে যান।
জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন দুই পক্ষের মাঝখানে দাঁড়িয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। তবে ছাত্রলীগ কর্মীদের কাছে পাত্তা পাননি বলে জানা যায়।
এ বিষয়ে পুলিশ কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেছে।
এদিকে শিক্ষকদের অভিযোগের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি পার্থ বলেন, ‘বাধা দেওয়ার বিষয়টি সাংগঠনিক কোনো সিদ্ধান্ত না। যার যার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে এতে অংশ নিয়েছে।’

Leave a Reply