শতাধিক মাদক ব্যবসায়ীর সম্পদের অনুসন্ধান শুরু দুদকের

ঢাকা, ৩০ মে, ২০১৮ : দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) রাজধানীসহ সারাদেশের শতাধিক মাদক ব্যবসায়ীর সম্পদের অনুসন্ধান শুরু করেছে।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর আগে এসব মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা দুদকে পাঠিয়েছিল।
দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য আজ বাসসকে বলেন, ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পাঠানো তালিকা অনুযায়ী শতাধিক মাদক ব্যবসায়ীর সম্পদের অনুসন্ধান করতে দুদকের একাধিক টিম ইতোমধ্যে মাঠ পর্যায়ে কাজ শুরু করেছে।’
তিনি জানান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পাঠানো তালিকা যাচাই বাছাই শেষে কমিশনের অনুমোদন সাপেক্ষে শতাধিক ব্যক্তির মাদক সংক্রান্ত ৭৭ টি অভিযোগ নথিভূক্ত করা হয়েছে।
দুদকের বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা অনুসন্ধান কাজ সমন্বয় করছেন বলে দুদকের এই মুখপাত্র জানান।
তিনি জানান, অনুসন্ধান শেষে এসব মাদক ব্যবসায়ীর সম্পদের হিসাব বিবরণী কমিশনে দাখিলের জন্য তাদের বলা হবে।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে ৪৬৫ জন মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা প্রথম পর্যায়ে গত বছরের জানুয়ারি মাসে দুদকের কাছে হস্থান্তর করে। এ তালিকা আরও যাচাই বাচাই করে দ্বিতীয় পর্যায়ে অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ১৪১ জন মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা দুদকে দেয়া হয়।
এদিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক (ইন্টিলিজেন্স) নজরুল ইসলাম সিকদার জানান, তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে আরও তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তালিকাভূক্তদের ব্যাপারে গোয়েন্দা নজরদারীও বাড়ানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালযের নির্দেশে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবি, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তর ও কোস্ট গার্ডসহ সব গোযেন্দা সংস্থার সমন্বয়ে একটি কোর কমিটি গঠন করা হয়েছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ জামাল উদ্দিনকে এ কোর কমিটির প্রধান করা হয়েছে।

Inline
Inline