শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে বাংলাদেশ ১০০তম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চলতি বছর বৈশ্বিক শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে গত বছরের চেয়ে বাংলাদেশের পাসপোর্টের পাঁচ ধাপ অবনতি ঘটেছে। বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টধারী দেশের তালিকা মূল্যায়নকারী আন্তর্জাতিক সংস্থা হেনলে পাসপোর্ট ইনডেক্সের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নাগরিকত্ব ও পরিকল্পনা সংস্থা হেনলে অ্যান্ড পার্টনার্স ৯ অক্টোবর বৈশ্বিক পাসপোর্টের এ সূচক প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের বিশ্ব পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে লেবানন, ইরান ও কসোভোর সঙ্গে ১০০তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। বিশ্বের ৪১টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা রয়েছে এ চার দেশের।
হেনলে অ্যান্ড পার্টনার্স বলছে, ২০১৭ সালে এই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৯৫তম। ওই বছর বিশ্বের ৩৮টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা পেত বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা।

তবে এ বছর বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর পাসপোর্টধারী দেশের জায়গা দখল করেছে জাপান। বিশ্বের ১৯০টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুযোগ রয়েছে জাপানি পাসপোর্টধারীদের। গত বছর এই সূচকে জাপানের পাসপোর্টের অবস্থান ছিল পঞ্চম।

২০১৭ সালে বিশ্ব পাসপোর্ট সূচকে সিঙ্গাপুর চতুর্থ অবস্থানে থাকলেও এবছর দেশটির উন্নতি ঘটেছে। হেনলের এই পাসপোর্ট সূচকে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে সিঙ্গাপুর। বিশ্বের ১৮৯টি দেশে ভিসা মুক্ত প্রবেশের সুযোগ রয়েছে সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টধারীদের।
চলতি বছরের শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে ফ্রান্স, জার্মানি ও দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। ১৮৮টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা রয়েছে এ তিন দেশের।

তবে পাসপোর্ট সূচকের একেবারে তলানিতে রয়েছে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান এবং ইরাক। ৩০ দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা নিয়ে এ দুই দেশ রয়েছে ১০৫তম অবস্থানে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধার সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে বিশ্ব পাসপোর্ট সূচক তৈরি করে মার্কিন নাগরিকত্ব ও পরিকল্পনা সংস্থা হেনলে অ্যান্ড পার্টনার্স। ভ্রমণের সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য তথ্য সংরক্ষণকারী আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) তথ্য নিয়ে এই সূচক তৈরি করেছে হেনলে।

সূত্র : রয়টার্স, স্ট্রেইট টাইমস।