লিচু খেতে গিয়ে মার খেলেন ২ ছাত্রলীগ নেতা

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে রাতে লিচু খেতে গিয়ে মার খেয়েছেন ছাত্রলীগের দুই নেতা। মঙ্গলবার রাত পৌনে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের পেছনে বাগানে গেলে তাদের মারধর করা হয়।

 

আহতরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান কানন ও উপ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক মেহেদি হাসান। ছাত্রলীগ নেতা কাননের দুই হাত ভেঙে গেছে ও মেহেদীর পায়ে গুরুতর জখম হয়। বর্তমানে তারা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮ ও ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কানন ও মেহেদীসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী বাগানে লিচু পাড়তে যান। এ সময় বাগানটি পাহারার দায়িত্বে থাকা বেশ কয়েকজন প্রহরী তাদেরকে বাধা দেন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। এতে প্রহরীরা তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি-বাঁশ দিয়ে সবাইকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন।

 

খবর পেয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থলে রড, স্ট্যাম্প নিয়ে উপস্থিত হন। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে মারধরকারীরা পালিয়ে যায়। ওই সময় নেতাকর্মীরা প্রহরীদের থাকার জন্য তৈরি করা মাচার ঘরটিতে আগুন দেয়।

 

ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে বলে তিনি জানান। এ ঘটনায় মামলার পর পুলিশ একজনকে আটক করেছে।