‘লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করেছে চ্যানেল নাইন’

নিজস্ব প্রতিবেদক : চ্যানেল নাইনের বার্তা বিভাগ বন্ধ করে লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম আইন বিশেষজ্ঞ অ্যাডভোকেট জাফরুল হাসান শারিফ।

তিনি বলেন, টেলিভিশনের লাইসেন্স দেয়ার সময় শর্তে বলা হয় সুষ্ঠু বিনোদন ও বস্তুনিষ্ঠ তথ্য পরিবেশন করতে হবে। মাঝপথে এসে বার্তা বিভাগ বন্ধ করে দেয়াটা অবশ্যই লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ।

শনিবার রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টার আয়োজিত ‘সংকটে বেসরকারি টেলিভিশন’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত চ্যানেল নাইনের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) নুরুল ইসলাম খান (খসরু) বলেন, ‘আমাদের আইন কর্মকর্তা এখন উপস্থিত নেই। তাই বিষয়টি আমি স্পষ্ট করে বলতে পারছি না। আমার মনে হয় এটা লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ নয়। কারণ চ্যানেল নাইনের যাত্রা শুরুর সময় বার্তা বিভাগ ছিল না।

তিনি বলেন, অর্থনৈতিক সংকটের পাশাপাশি চ্যানেল নাইন মিক্স টেলিভিশন হওয়ায় বিভিন্ন ইস্যুতে সংবাদভিত্তিক চ্যানেলগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে না পারায় কর্তৃপক্ষ বার্তা বিভাগ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বার্তা বিভাগে কর্মরত সব সদস্যকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দানের নোটিশটি তিন মাস আগে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ বক্তব্যের প্রেক্ষিতে জাফরুল হাসান শারিফ বলেন, এক্ষেত্রেও আইন যথাযথভাবে প্রতিপালন করা হয়নি। কারণ আইন অনুযায়ী বার্তা বিভাগে কর্মরত সব সদস্যকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দানের নোটিশটি চার মাস আগে জানানোর কথা।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এতে আরও বক্তব্য রাখেন স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসির চেয়ারম্যান ইকবাল সোবহান চৌধুরী, চ্যানেল ২৪-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদ, ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের সভাপতি রেজওয়ানুল হক, সদস্য সচিব শাকিল আহমেদ, সারাবাংলা ডটনেট, দৈনিক সারা বাংলা ও জিটিভির এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৩ মার্চ বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নাইনের বার্তা বিভাগ বন্ধের ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ। এর জেরে চ্যানেলটির ১৬০ সাংবাদিক ও কর্মচারীকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন ডিআরইউ সদস্যও রয়েছেন।

চ্যানেলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনায়েতুর রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ আদেশ দেয়া হয়। চিঠিতে বলা হয়, ২৮ মার্চ থেকে চ্যানেল নাইনে খবর সম্প্রচারসহ বার্তা বিভাগের সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। বার্তা বিভাগে কর্মরত সব সদস্যকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দানের নোটিশ প্রদান করা হলো, যা আজ হতে ৯০ দিনের মধ্যে কার্যকর হবে।

এতে আরও বলা হয়, চ্যানেলটি এখন থেকে শুধু খেলাধুলা ও বিনোদন-সংক্রান্ত অনুষ্ঠান সম্প্রচার করবে।

চ্যানেল নাইনের বার্তা বিভাগ বন্ধের ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ)। গত ৫ মার্চ এক বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি ইলিয়াস হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান এ উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে চ্যানেল নাইন কর্তৃপক্ষকে এ ধরনের হঠকারী পদক্ষেপ থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়ে তারা বলেন, দেশের গণমাধ্যম বিকাশ সরকারের ইতিবাচক উদ্যোগের সুযোগ নিয়ে, শুধু ব্যবসায়িক স্বার্থ হাসিল রীতিমতো অন্যায় ও অমানবিক। সাংবাদিক ও কর্মচারীদের ত্যাগ-তিতীক্ষার প্রতি সম্মান রেখে মানবিক হওয়া দরকার। অন্যথায় উদ্ভূত পরিস্থিতির দায়ভার চ্যানেল নাইন কর্তৃপক্ষকেই বহন করতে হবে।