রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে: চীনা রাষ্ট্রদূত

নিজস্ব প্রতিবেদক : মিয়ানমারের চলমান সহিংসতার নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত মা মিং কিয়াং বলেছেন, এটা মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয় হলেও বাংলাদেশ এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধানে বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা হয়েছে বলে জানান তিনি।

রবিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক চুক্তি সই অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন চীনা রাষ্ট্রদূত।

মা মিং কিয়াং বলেন, ‘গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এর ফলে দেশটির অনেক জনসংখ্যা হুমকির মুখে পড়ে। অনেকে বর্ডার পার হয়ে বাংলাদেশে আসে। এটা প্রকৃতভাবে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয় হলেও, দুর্ভাগ্যের বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশ এটার সাফার করছে। এ ইস্যুটি কোনোভাবেই সমাধান হচ্ছে না। এর ফলে চীনও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। কারণ আমারা সেখানে বিনিয়োগ করেছি। আমরা আশা করি যত দ্রুত সম্ভব এ সহিংসতা বন্ধ হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে মা মিং কিয়াং বলেন, ‘আমি চীনের রাষ্ট্রদূত। আমার কথা চীনের সরকারের কথা।’

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের কয়েকটি তল্লাশিচৌকিতে উগ্রবাদীদের হামলার সূত্র ধরে রাখাইন রাজ্যে দমন অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও পুলিশ। এ সহিংস অভিযানের কারণে লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাড়িঘর ছেড়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।

চুক্তি সই করা প্রকল্প দুইটি হচ্ছে- ডেভেলপমেন্ট অব আইসিটি ইনফ্রা নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গভর্মেন্ট ফেইজ-৩ (ইনফো-সরকার-৩) এবং মর্ডানাইজেশন অব টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক ফর ডিজিটাল কানেকটিভিটি (এমওটিএন) প্রকল্প। এ দুইটি প্রকল্পের ফ্রেমওয়ার্ক অ্যাগ্রিমেন্টে (কাঠামোগত চুক্তি) স্বাক্ষর করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আযম ও ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত মা মিং কিয়াং।