রাশিয়া বিশ্বকাপের স্টেডিয়াম পরিচিতি-৯

ক্রীড়া ডেস্ক : আর কয়েকদিন পরেই পর্দা উঠবে ফুটবল বিশ্বকাপের। বিশ্বকাপের ২১তম এই আসর আয়োজনের গুরুদায়িত্ব পেয়েছে বিশ্ব মানচিত্রের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে নানা ভাবে তৈরি হচ্ছে দেশটি। তারই ধারাবাহিকতায় রাশিয়ার ১১টি শহরে তৈরি করা হয়েছে ১২টি স্টেডিয়াম। যার মধ্যে ছয়টি স্টেডিয়ামই তৈরি হয়েছে এই বিশ্বকাপের জন্য। বিশ্বকাপে স্টেডিয়াম নির্মাণ ও পুনঃসংস্কারে ব্যয় করা হয়েছে প্রায় ৫.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার!

রাশিয়া বিশ্বকাপের ১২ টি স্টেডিয়াম নিয়ে ধারাবাহিকের আজ থাকছে মোর্দোভিয়া অ্যারেনা এবং ভোলগোগ্রাদ অ্যারেনা স্টেডিয়ামটির খুঁটিনাটি।

মোর্দোভিয়া অ্যারেনা, সারানস্ক

মর্দোভিয়া অ্যারেনা ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের নতুন ভেন্যুগুলোর একটি। এই স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৪৪,৪৪২। ২০১১ সালে মোর্দোভিয়া অ্যারেনার নির্মাণ কাজ শুরু হলেও ২০১২ সালে অপর্যাপ্ত অর্থায়নের জন্য কাজ থেমে যায়। ২০১৪ সালে পুণরায় নির্মাণ কাজ শুরু হয়। মোদোর্ভিয়া প্রস্তুতে ব্যয় হয়েছে ৩৩৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আসন্ন বিশ্বকাপে এখানে চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

মোর্দোভিয়া অ্যারেনায় অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচসমূহ

১৬ জুন ২০১৮, পেরু বনাম ডেনমার্ক

১৯ জুন, কলম্বিয়া বনাম জাপান

২৫ জুন, ইরান বনাম পর্তুগাল

২৮ জুন, পানামা বনাম তিউনিশিয়া

ভোলগোগ্রাদ অ্যারেনা, নভোলগোগ্রাদ

ভোলগোগ্রাদ শহরের ভোলগা নদীর উত্তর পাশের তীর ঘেঁষে বেড়ে উঠে ভোলগোগ্রাদ স্টেডিয়াম। ৪৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করে নির্মাণ করা হয়েছে স্টেডিয়ামটি। এই স্টেডিয়ামের সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে ঝুলন্ত গ্যালারি! আগে ওখানে ভোলগোগ্রাদ প্রিন্সিপাল স্টেডিয়াম ছিল। ওটা ভেঙ্গে ২০১৪ সালে ভোলগোগ্রাদ স্টেডিয়াম তৈরির কাজ শুরু হয়

বিশ্বকাপে ভোলগোগ্রাদ স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বের ৪ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

ভোলগোগ্রাদ অ্যারেনায় অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচসমূহ…

১৮ জুন ২০১৮, তিউনিশিয়া বনাম ইংল্যান্ড

২২ জুন, নাইজেরিয়া বনাম আইসল্যান্ড

২৫ জুন, সৌদি আরব বনাম মিশর

২৮ জুন, জাপান বনাম পোল্যান্ড