রানার মোটরসাইকেল রপ্তানি হচ্ছে ভুটানে

অটোমোবাইল প্রতিবেদক : নেপালের বাজারে সাফল্যের পর এবার ভুটানেও মোটরসাইকেল রপ্তানি করতে যাচ্ছে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড। নভেম্বর মাস থেকে রপ্তানি শুরু হবে।

ভুটানে মোটরসাইকেল রপ্তানির জন্য রানার ভুটানের রাষ্ট্রায়ত্ব কোম্পানি স্টেট ট্রেডিং করপোরেশন অব ভুটান লিমিটেডকে (এসটিসিবিএল) পরিবেশক নিযুক্ত করেছে।

প্রাথমিকভাবে এসটিসিবিএল ভুটানের বাজারে রানার ব্র্যান্ডের ১০০ থেকে ১৫০ সিসির চারটি মডেল ভুটানের বাজারে সরবরাহ করবে।

আগামী মাসেই রপ্তানি মোটরসাইকেলের প্রথম চালান ভুটানের বাজারে প্রবেশ করবে।

এজন্য এসটিসিবিএলের সঙ্গে ২৫ সেপ্টেম্বর সঙ্গে চুক্তি করেছে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রানার অটোমোবাইলসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মুকেশ শর্মা এবং স্টেট ট্রেডিং করপোরেশন অব ভুটান লিমিটেডের (এসটিসিবিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইয়েশি সেলডেন এ সংক্রান্ত চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, ‘ভুটানের বাজারে মোটরসাইকেল রপ্তানি রানার গ্রুপের পাশাপাশি বাংলাদেশের জন্যও গৌরবের বিষয়। আমরা দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান স্টেট ট্রেডিং করপোরেশনকে সহযোগী হিসেবে পেয়েছিল ভুটানের বাজারে আমরা ভোক্তাদের ভালো মানের পণ্য ও সেবা পৌছে দেওয়ার মাধ্যমে দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্য নিয়ে এগুতে চাই।

এ বছরের ২০ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল নেপালে রপ্তানির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশ করে শুরু করে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড।

২০০০ সালে মোটরসাইকেল আমদানি করে বাজারজাত শুরু করে রানার। ২০০৭ সালে ময়মনসিংহের ভালুকায় রানার বাংলাদেশে প্রথম মোটরসাইকেলের কম্পোনেন্টস তৈরির মাধ্যমে স্থানীয়ভাবে মোটরসাইকেল উৎপাদন শুরু করে।

Inline
Inline