রাজীব গান্ধীকে ‘অপমান’, ভয়ে সাইফ

বিনোদন ডেস্ক : বেশ ভালোই বিতর্ক সৃষ্টি করেছে সাইফ আলি খান অভিনীত নতুন নেটফ্লিক্স সিরিজ ‘সেক্রেড গেমস’। যদিও এই বিতর্কের কেন্দ্রে সাইফ নন, ছবির আরেক অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। ছবিতে তার বলা একটি সংলাপকে কেন্দ্র করে আপাতত সরগরম ভারতের রাজনীতি। যে সংলাপের জেরে নওয়াজউদ্দিনের নামে থানায় অভিযোগ পর্যন্ত গেছে। এমনকি, সিরিজটি বন্ধ হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।

নওয়াজউদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ‘সেক্রেড গেমস’ ছবির একটি সংলাপে ভারতের প্রাক্তণ প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে ‘ভিতু’বলে অপমান করেছেন। যার জেরে রাজীব কুমার সিনহা নামের একজন কংগ্রেস কর্মী কলকাতার গিরিশ পার্ক থানায় নওয়াজের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এই সংলাপ আর অভিযোগ দায়েরের খবর পরে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী পর্যন্ত পৌছে যায়।

নওয়াজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ব্যাপারে তিনি মুখ না খুললেও মুখ খুলেছেন ছবির প্রধান অভিনেতা সাইফ আলি খান। যিনি ‘সেক্রেড গেমস’-এ একজন পুলিশ ইনস্পেক্টরের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। চলমান বিতর্কে আশঙ্কা প্রকাশ করে একটি ওয়েবসাইটকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ভারতে কেউ অন্য জাতের কারও সঙ্গে প্রেম করলে খুন হয়ে যেতে পারে। জানি না এখানে সরকারের সমালোচনা কতটা করা যায়। আমার মনে হয় সেও খুন হয়ে যেতে পারে।’

যদিও বাবা রাজীব গান্ধীকে অসম্মান করার অভিযোগকে মোটেই পাত্তা দিচ্ছেন না ছেলে রাহুল গান্ধী। এক টুইট বার্তায় রাহুল জানিয়েছেন, তিনি বিজেপি বা আরএসএস মত প্রকাশের স্বাধীনতায় নজরদারি ও নিয়ন্ত্রণে বিশ্বাসী। তবে তার মতে, এই স্বাধীনতা মৌলিক গণতান্ত্রিক অধিকার। কাজেই কল্পিত কোনো ওয়েব সিরিজের একটি সংলাপ তার বাবার ভাবমূর্তি বদলাতে পারবে না।

প্রসঙ্গত, অপরাধ-থ্রিলার ‘সেক্রেড গেমস’ তৈরি হয়েছে মুম্বাইয়ের অপরাধ, দুর্নীতি ও রাজনীতির মিশেলে। সিরিজটিতে আডবাণীর রথযাত্রা, বাবরি মসজিদ ধ্বংস, মুম্বাই বিস্ফোরণসহ বিভিন্ন ঘটনার উল্লেখ রয়েছে। এমন সংলাপও রয়েছে যে, ধর্ম ভারতে সবচেয়ে বড় ব্যবসা। বিক্রম চন্দ্রের লেখা ‘সেক্রেড গেমস’ উপন্যাস অবলম্বনে একই নামে সিরিজটি যৌথভাবে নির্মাণ করেছেন অনুরাগ কাশ্যপ ও বিক্রমাদিত্য মোতওয়ানি।