রাজশাহীতে কৃষক আক্তার হত্যায় মামলা দায়ের

রাজশাহীর তানোর উপজেলার কৃষক আক্তার হোসেনের (৩২) মৃত্যুতে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন তার স্ত্রী হিরা বেগম (২৮)।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করে হিরা বেগম এই মামলা দায়ের করেন।

এদিকে মামলা দায়েরের আগেই দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শমসেদ আলী (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। শমসেদ উপজেলার সিঁধাইড় গ্রামের মৃত আশেক আলীর ছেলে।
সোমবার দুপুরে আক্তার হোসেনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আক্তার উপজেলার ভাগনা গ্রামের আবদুস সাত্তারের ছেলে। ওই দিন আক্তারের স্ত্রী হিরা বেগম বলেছিলেন, কয়েকমাস আগে পাশের সিধাইড় গ্রামের শমসেদ আলীর ছেলে তোতা মিয়ার সঙ্গে তার স্বামীর মারামারি হয়।

এ ঘটনায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মালেক গ্রাম্য সালিশে আক্তার হোসেনকে জুতাপেটা করেন। পাশাপাশি উঠবস করানো হয় কান ধরে। চাটানো হয় থু-থু। পরে আক্তার হোসেনকে আবার মারপিট করেন তোতা মিয়া ও তার সহযোগিরা।

এ নিয়ে হিরা বেগম তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন। কিন্তু এ মামলা তুলে নিতে আক্তারকে হত্যার হুমকি দিয়েছিলেন আসামিরা। হিরার দাবি, ওই মামলার আসামিরাই তার স্বামীকে হত্যা করে লাশ আম গাছের ডালের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখেছিলেন। হত্যা মামলার এজাহারেও তিনি এ কথা বলেছেন।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর্জা আবদুস সালাম বলেন, স্বামীকে মারপিটের অভিযোগে হিরা বেগম যাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন, হত্যা মামলাতেও তাদের আসামি করা হয়েছে। এরই মধ্যে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি।