রাজশাহীকে হারিয়ে নাম্বার ওয়ান খুলনা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৩০তম ম্যাচে খুলনা টাইটানস বোলারদের তোপে উড়ে গেল রাজশাহী কিংস। চট্রগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে টস জিতে খুলনাকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় রাজশাহী দলনেতা ড্যারেন স্যামি। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২১৩ রানের রেকর্ড সংগ্রহ গড়ে খুলনা। জবাবে ১৪৫ রানে গুটিয়ে যায় রাজশাহী।

রাজশাহীর পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেছেন রনি তালুকদার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯ রান এসেছে মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাট থেকে। এ ছাড়া জাকির হোসেনের ১৯, জেমস ফ্রাঙ্কলিনের ১৪ এবং মোহাম্মদ সামির ১৮ রান হারের ব্যবধান কমায় মাত্র। খুলনার হয়ে একাই ৫ উইকেট শিকার করেছেন শফিউল ইসলাম। ২টি উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন আবু জায়েদ। খালি হাতে ফেরেননি আর্চার, মাহমুদউল্লাহ এবং আফিফ।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে দেখেশুনেই শুরু করেন খুলনার দুই ওপেনার শান্ত এবং রুশো। কোনো উইকেট না হারিয়ে ২৮ রান যোগ করেন উদ্বোধনী জুটি। ব্যক্তিগত ৬ রানের মাথায় রান আউটের শিকার হয়ে বিদায় নেন রুশো। দ্বিতীয় উইকেটে আফিফকে সঙ্গে নিয়ে আবারও জুটি মেরামতের কাজ করেন শান্ত। এ জুটি থেকে খুলনা পায় ৪৫ রান। ফিফটি থেকে ১ রান দূরে থেকে সাজঘরে ফিরে যান শান্ত।

ওপেনার শান্ত ফিরে গেলেও থেমে থাকেনি আফিফের লড়াই। ৫ ছয়ের সাহায্যে দলকে উপহার দেন ৫৪ রান। তাকে সঙ্গ দিয়ে ৫৭ রান করেন নিকোলাস পুরান। তবে দলনেতা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আজ পারেননি নামের প্রতি সুবিচার করতে। রানের খাতা খুলেই আউট হয়ে যান তিনি। শেষদিকে ৩ চার ও ৩ ছয়ে ১৪ বলে ৩৪ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন ব্রাথওয়েট।

রাজশাহী কিংসের পক্ষে একাই তিন উইকেট শিকার করেছেন জেমস ফ্রাঙ্কলিন। ৪ ওভারে ৫০ রান খরচায় এই সাফল্য ঝুলিতে পুরেছেন রাজশাহীর পেসার। ১টি উইকেট দখলে নিয়েছেন মোহাম্মদ সামি।