রফতানি বৃদ্ধির লক্ষ্যে থাইল্যান্ডের সঙ্গে এফটিএ চুক্তি স্বাক্ষর হবে : তোফায়েল

ঢাকা, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮ : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাণিজ্য ও রফতানি বৃদ্ধির লক্ষ্যে মুক্ত-বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) স্বাক্ষরের জন্য বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ড যৌথভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে রয়েল থাইল্যান্ড দূতাবাস আয়োজিত চারদিনব্যাপী ‘থাই উইক-২০১৮’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘থাইল্যান্ডে রফতানি বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ এফটিএ চুক্তি স্বাক্ষরের উদ্যোগ নিয়েছে।’
সম্প্রতি ঢাকায় অনুষ্ঠিত যৌথ অর্থনৈতিক কমিশনের এক বৈঠকে বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনার লক্ষ্যে বাংলাদেশ থাইল্যান্ডের কাছে এফটিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে।
থাইল্যান্ড এই মুহূর্তে বাংলাদেশের কাছে ৬ হাজার ৯৯৮টি বাংলাদেশী পণ্যের শুল্ক-মুক্ত সুবিধা চেয়েছে এবং দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য দুই বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে।
তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ থাইল্যান্ডের কাছে পাটজাত পণ্য ও তৈরি পোশাকের শুল্কমুক্ত প্রবেশ বা সর্বনি¤œ শুল্ক ধার্য্যরে আহ্বান জানিয়েছে।
ভ্রমণ, চিকিৎসা ও ব্যবসা-বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যক মানুষের থাইল্যান্ড গমনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ ভিসা-প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য থাই সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছে।
প্রদর্শনীতে মোট ৪৫টি থাই কোম্পানি এবং বাংলাদেশের ২৮টি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করছে। এতে ৭৯টি স্টলে প্রদর্শন ও বিক্রয়ের জন্য শিল্পজাত পণ্য, ফল, খাদ্য, গৃহসামগ্রী, জুয়েলারি ও কসমেটিকসহ ১৮টি ক্যাটাগরির বিভিন্ন পণ্য রয়েছে।
এই প্রদর্শনী দর্শকদের জন্য আগামী ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।
থাই রাষ্ট্রদূত পানপিমন সুওয়ান্নাপঞ্জের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে দূতাবাসের মিনিস্টার কাউন্সিলর (কমার্শিয়াল)ও বক্তব্য রাখেন।