যৌতুক চাওয়ায় স্ত্রীর মামলা, কারাগারে পুলিশ সার্জেন্ট

Crime desk:

স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় তরিকুল ইসলাম নামে এক পুলিশ সার্জেন্টকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার দুপুরে জয়পুরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নাহিদ আখতার জুলিয়েট এ আদেশ দেন। তিনি বগুড়ায় কর্মরত ছিলেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার নাজিরপাড়া এলাকার তোজাম্মেল হোসেনের ছেলে তরিকুল ইসলামের সঙ্গে গত ১৪ আগস্ট একই উপজেলার নিশ্চিতা বাজার এলাকার গোলাম মোস্তফার মেয়ে মায়া আকতার নিশির বিয়ে হয়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট বিভাগের অনুমতি না থাকার অজুহাতে রেজিষ্ট্রি ছাড়াই ইসলামী শরিয়াহ্ মতে সেই বিয়ে সম্পন্ন হয়।

এদিকে বিয়ের পর থেকেই তরিকুল বিভিন্নভাবে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে চাপ দিতে থাকে। এরই একপর্যায়ে গত ১১ নভেম্বর ৬ লাখ টাকা দেন-মোহরে তাদের বিয়ের রেজিষ্ট্রি করা হয়। এর কিছুদিন পরই তরিকুল ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি। কিন্তু মায়ার পরিবার এতে অপারগতা প্রকাশ করে। এ কারণে মায়াকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেন তরিকুল।

এমন অভিযোগে গত ১৪ নভেম্বর মায়া আকতার বাদী হয়ে জয়পুরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা করেন। এরপর আদালতে জামিন আবেদন করেন তরিকুল। আদালত সেই আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংক্রান্ত রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ফিরোজা চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।