যে কারণে বাংলাদেশ গ্রুপের শীর্ষ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ৪০ দেশ র‌্যাংকিং অনুসারে ছিল ৫ টি পটে। বাংলাদেশ ছিল শেষ পটে। লটারির মাধ্যমে পাঁচ নম্বর পট থেকেই একটি একটি করে দলের নাম উঠিয়ে রাখা হয় ৮ গ্রুপে।

গুয়াম, নেপাল, কম্বোডিয়া, সিঙ্গাপুরের পর বাংলাদেশের নাম ‘ই’ গ্রুপের পঞ্চম দল হিসেবে। ৫ নম্বরেই বসানো হয় বাংলাদেশের নাম। গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবে এক নম্বর পট থেকে উঠেছিল কাতারের নাম। কিন্তু গ্রুপ চূড়ান্ত হওয়ার পরই বাংলাদেশের নাম ৫ নম্বর থেকে তুলে বসানো হয় এক নম্বরে। এক নম্বর হওয়া কাতারকে বসানো হয় পাঁচে।

কিন্তু কেন? কুয়ালালামপুরে ড্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ। ড্রয়ের পর বাফুফে সাধারণ সম্পাদক বলেছেন,‘কাতার ছাড়া এক নম্বর পট থেকে অন্য যে কোনো দেশ ‘ই’ গ্রুপে উঠলে বাংলাদেশ থাকতো ৫ নম্বরেই। কিন্তু কাতার আগেই অনুরোধ করে রেখেছিল তাদের যেন গ্রুপের শেষ দল হিসেবে রাখা হয়।’

কাতারের এই অনুরোধ ড্র অনুষ্ঠানের শুরুতে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল উপস্থিত সবাইকে। কাতারের এই চাওয়ার কারণ ছিল আগামী বছরের কোপা আমেরিকা।

এবারের মতো আগামী বছরও ল্যাটিন আমেরিকার এই ফুটবল টুর্নামেন্টে খেলবে কাতার। কোপা আমেরিকা হবে ১২ জুন থেকে ১২ জুলাই। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের কিছু ম্যাচ আছে ওই সময়েও। তবে গ্রুপের ৫ নম্বর দলের খেলা শেষ হয়ে যাবে ১০ জুনের মধ্যে। তাই কাতারের বিশ্বকাপ ম্যাচ আর কোপায় অংশ নেয়ার সময়টা আর সাংঘর্ষিক থাকছে না।

বাংলাদেশ গ্রুপের ৫ নম্বরে থাকলে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রথম ম্যাচ খেলতো ৫ সেপ্টেম্বর। এখন বাংলাদেশ গ্রুপের শীর্ষ দল। তাই লাল-সবুজ জার্সিধারীরা প্রথম ম্যাচ খেলবে ১০ সেপ্টেম্বর।

কাতার এবার ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত কোপা আমেরিকায় অংশ নিয়েছিল আর্জেন্টিনার সঙ্গে ‘বি’ গ্রুপে। প্যারাগুয়ের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে শেষ দুই ম্যাচ তারা হেরেছে কলোম্বিয়ার কাছে ১-০ ও আর্জেন্টিনার কাছে ২-০ গোলে।