যমুনায় বাড়ছে পানি, ভোগান্তিতে চরাঞ্চলের মানুষ

সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা : উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি ৮ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদ সীমার ২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানির তীব্র স্রোতের কারণে নাটুয়ারপাড়া রক্ষাবাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে।

কাজিপুর উপজেলার চরাঞ্চলের খাসরাজবাড়ি, পলাশপুর, নতুন মাইজবাড়ি, মাজনাবাড়ি, দাতবোড়া, খিরাইকান্দি, শুভগাছা, উজান মেওয়া খোলা, নতুন মাইজবাড়ি, ভাঙ্গার ছেও গ্রামে পানি ঢুকে পড়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে চরাঞ্চলের মানুষ।

বন্যার পানি ঢুকে পড়েছে মহিমাপুর, কালিকাপুর, জিওল, দাঁদবোরা, পলাশপুর, কালিকাপুর, মাজনাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও খাসরাজবাড়ি বালিকা বিদ্যালয়সহ মোট ২০টি বিদ্যালয়ে।

উপজেলার জিওল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের জানান, বন্যার পানি বিদ্যালয়ের মাঠ ও রাস্তায় ঢুকে পড়েছে। ফলে আমরা কষ্ট করে আসলেও শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসতে পারছে না।

কাজিপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন জানান, কিছু বিদ্যালয়ের রাস্তায় এবং মাঠে পানি ঢুকেছে। কিন্তু ক্লাসরুমে পানি প্রবেশ করেনি। কাজিপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মামুনুর রহমান জানান, এবারের বন্যায় কাজিপুরে প্রায় ২শ হেক্টর রোপা আমন ক্ষেত পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম বলেন, ভারতের অংশে বৃষ্টিপাতের কারনে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এদিকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।