মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি জাদুঘরে দান বাক্স চুরি!

কথাসাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি জাদুঘরে চুরি হয়েছে। গত রোববার দিবাগত রাতের কোনো এক সময় এ ঘটনা ঘটে। ঘরের ভেতর থেকে মীরের স্মৃতিবিজড়িত কোনো কিছু খোয়া না গেলেও হারিয়েছে একটি লোহার বাক্স। যেটি জাদুঘরের উন্নয়নে দর্শনার্থীদের স্বেচ্ছায় দেওয়া টাকা রাখা হয়েছিল। এ ঘটনায় স্মৃতি জাদুঘরের তত্ত্বাবধায়ক মীর মাহাবুব উল আরিফ কুমারখালী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

মীর মাহাবুব উল আরিফ বলেন, রোববার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে তিনি জাদুঘরের সব কটি দরজায় তালা লাগিয়ে তিনি বাড়ি চলে যান। সোমবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে জানতে পারেন জাদুঘরের একটি দরজার লোহার হ্যাজবল্ট ভাঙা। তিনি ভেতরে গিয়ে দেখতে পান, জাদুঘরের উন্নয়নের অর্থের জন্য রাখা লোহার বাক্সটি নেই।

মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি জাদুঘরটি কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয়ে আসছে। প্রায় সাত বছর আগে জাদুঘরের ভবনটিও জেলা পরিষদ থেকে তৈরি করা হয়েছে। জানতে চাইলে জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান বলেন, মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি ধরে রাখতে পাঠাগারসহ একটি জাদুঘর নির্মাণ করা হয়েছিল। এর ভেতরে মীরের ব্যবহৃত আসবাবসহ তাঁর স্মৃতিজড়ানো বিভিন্ন ধরনের জিনিস রাখা আছে। ভবন নির্মাণের পর এটি রক্ষণাবেক্ষণ এবং উন্নয়নের অর্থ সংগ্রহের জন্য একটি লোহার বাক্স রাখা হয়। যার ওজন প্রায় ৪০ কেজি। জেলা পরিষদের তৎকালীন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মহিউদ্দিন জাদুঘরে বাক্সটি দান করেছিলেন। দর্শনার্থীরা এ বাক্সে স্বেচ্ছায় দান করেন। তবে একবারও বাক্সটি খোলা হয়নি। কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহীনুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনাটি জানার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে বলা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) নুরানী ফেরদৌস বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। থানায় জিডি হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ কাজ করছে। কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘প্রায় দুই বছর আগে শিলাইদহ কুঠিবাড়ি থেকে দুটি তরবারি চুরি হয়। আজ পর্যন্ত সেটি উদ্ধার হয়নি। এবার মীরের স্মৃতি জাদুঘরে চুরি হলো। আশা করছি সবকিছু উদ্ধারে প্রশাসন দ্রুত পদক্ষেপ নেবে।’

Inline
Inline