মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ সেরা সুন্দরীর দেখা মিলবে রাতে

বিনোদন ডেস্ক : চলছে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮’ প্রতিযোগিতা। সারা দেশ থেকে অংশগ্রহণকারী হাজারো প্রতিযোগী থেকে অডিশন, সিলেকশন, পারফরম্যান্সসহ বিভিন্ন রাউন্ডে ধাপে ধাপে বাছাই প্রক্রিয়া শেষে সেরা ১০ সুন্দরীকে বাছাই করা হয়েছে সপ্তাহ খানেক আগে। তাদেরকে গ্রুমিংয়ের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে গ্র্যান্ড ফিনালের জন্য। দেয়া হয়েছে নাচের প্রশিক্ষণ।

আজ রবিবার সেই কাঙ্খিত গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠান। আজ রাতেই জানা যাবে, এ বছরের ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’-এর চ্যাম্পিয়ন মুকুট উঠবে কার মাথায়। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার রাজদর্শন হল থেকে গ্র্যান্ড ফিনালের সেই অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বেসরকারি টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলা।

অন্তর শোবিজ আয়োজিত ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮’ প্রতিযোগিতার এবারের আসরে শুরু থেকেই বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন সংগীতশিল্পী শুভ্র দেব, অভিনেত্রী তারিন, মডেল খালেদ সুজন, ইমি ও ব্যারিস্টার ফারাবী। তবে গ্র্যান্ড ফিনালেতে তাদের সঙ্গে চার জন আইকন বিচারক থাকবেন। তারা হলেন সঙ্গীতশিল্পী শাফিন আহমেদ, তার ভাই হামিন আহমেদ, নৃত্যশিল্পী আনিসুল ইসলাম হীরু এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল।

সেরা ১০ সুন্দরীর মধ্য থেকে এ বছর যিনি ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ নির্বাচিত হবেন তার গ্রুমিং করা হবে লম্বা সময় ধরে। দেশি কোরিওগ্রাফারের পাশাপাশি ভারতের আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষক নয়নিকা চৌধুরী তাকে গ্রুমিং করাবেন। নয়নিকা চৌধুরী দুই মাসের জন্য ঢাকায় আসবেন। পুরো সময়টাতেই তিনি ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’কে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেবেন। বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন প্রতিযোগী পরে আগামী ডিসেম্বরে চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় অনুষ্ঠিতব্য ‘মিস ওয়ার্ল্ড’-এর মূল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন।

চলতি বছরের ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার শুরু থেকেই প্রতিযোগীরা একটা বিষয়ে বেশ সতর্ক। আয়োজক প্রতিষ্ঠান অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরীর ঘোষণা, এবার কেউ ব্যক্তিগত তথ্য গোপন করে প্রতিযোগতায় অংশ নিলে এবং সেটা প্রমাণ হলে তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা গুণতে হবে। নিয়মে আছে, বিবাহিত কোনো নারী এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন না।

কিন্তু গত বছর এমন নিয়মের বাইরে গিয়েই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। যার কারণে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭’ নির্বাচিত হওয়া সত্ত্বেও বিয়ের খবর প্রকাশের পর কেড়ে নেয়া হয় তার সেরার মুকুট। নতুন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হিসেবে পরে পুরান ঢাকার মেয়ে জেসিয়া ইসলামের নাম ঘোষণা করা হয়েছিল। গত বছরের এমন বিব্রতকর ঘটনার জন্যই এ বছর নড়েচড়ে বসেছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

তবে এ বছর এখনো পর্যন্ত তেমন কোনো ঘটনার আলামত পাওয়া যায়নি। কিন্তু সময় তো এখনও বাকি। কেননা, গত বছর এভ্রিলের বিয়ের ঘটনা প্রকাশ হয়েছিল গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানের পরদিন। কাজেই, চলতি বছরেও তেমন কিছু অপেক্ষা করছে কিনা সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।