‘মানবিক শিক্ষা ছাড়া মনুষ্যত্বের বিকাশ হয় না’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, ‘মানবিক শিক্ষা ছাড়া মূল্যবোধ ও মনুষ্যত্বের বিকাশ হয় না। বিশ্বে আজ জ্ঞান-বিজ্ঞানের সম্প্রসারণ হচ্ছে। কিন্তু সব মানুষের মাঝে মানবতাবোধ জাগ্রত হচ্ছে না। তাই সমাজে অনেক মানুষ অমানুষের মতো কাজ করছে।

বিশ্বকে শান্তির বিশ্ব বানাতে সবাইকে জ্ঞান-বিজ্ঞানের সব শাখার সঙ্গে মানবিক ও মূল্যবোধের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ঢাবি কলা অনুষদভুক্ত বিভিন্ন বিভাগের কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের স্বীকৃতিস্বরূপ ৯০ জন শিক্ষার্থীকে ‘ডিনস অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাবির নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ২০১৩ ও ২০১৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক সম্মান ও স্নাতকোত্তর কৃতি শিক্ষার্থীদের এ অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ‌‌‘ডিনস অ্যাওয়ার্ড’ প্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘নিয়মিত লেখাপড়া ও কঠিন পরিশ্রমের ফলে তোমরা এই অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছো। ফলে পরিবার, সমাজ, দেশ ও জাতির প্রতি তোমাদের দায়িত্ববোধ বেড়ে গেছে। তোমরা তোমাদের ওপর অর্পিত এ দায়িত্ব সঠিক ও যথাযথভাবে পালন করে দেশ ও জাতিকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এতে সভাপতিত্ব করেন।

অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. সহিদ আকতার হুসাইন ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন।

অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. এএফ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বেগম আকতার কামাল এবং অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তদের মধ্য থেকে উন্মেষ রায় ও নুসরাত গুলজার।

অনুষ্ঠানে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসেবে কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালে কলা অনুষদের তৎকালীন ডিন ড. কাজী শহিদুল্লাহ এই ডিনস অ্যাওয়ার্ড চালু করেন।