মাদকাশক্তির প্রভাবে তালায় জনজীবন হুমকির মুখে

এসএম হাসান আলী বাচ্চু, তালা(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার তালা উপজেলার খেশরা ইউনিয়ন আজ মাদক বিক্রেতা ও মাদকাসক্তদের অভায়ারন্য। ফলে এখানকার জনজীবন আজ সামাজিক অবক্ষয়ের কারনে হুমকির মুখে।

তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, ইউনিয়নের প্রায় সর্বত্র তরুন-যুবকদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। এদের মধ্যে স্কুল/কলেজ পড়ুয়া ছাত্ররাও আছে। কোন ভাবে নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছে না এ ভয়াবহ অবস্থা। সাধারনত সন্ধ্যার পর ও রাতে চলে মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের অবাধ বিচরন। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে এখানে কিছু কিছু লোক চালিয়ে যাচ্ছে তাদের মাদক ব্যবসা। এছাড়া সেবনকারীরা বেশিরভাগ মাদক ক্রয় করে নিয়ে আসছে আশাশুনি উপজেলার খরিয়াটি, কুল্যার মোড়, বুধহাটা, বাঁকা, বড়দল, তালা উপজেলার মাগুরা, গোপালপুর, পাটকেলঘাটাসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে। এসব মাদকের মধ্যে রয়েছে প্রধানতঃ ইয়াবা, হেরোইন ও গাঁজা। জানা গেছে, প্রতিটি ইয়াবা ট্যাবলেটের মূল্য ১০০-১৫০ টাকার মধ্যে, হেরোইন এক পুরিয়া ১০০-১২০ টাকা এবং গাজা এক পুরিয়া সর্বনিম্ন ১০০ টাকা।

হরিহরনগরের এক ব্যক্তি অন্য ব্যবসার আড়ালে ইয়াবা ও হেরোইন বিক্রি করে থাকেন বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি। মাদকের প্রভাব ও অপব্যবহার সম্পর্কে খেশরা পুলিশ ক্যাম্পের টু-আইসি মোঃ মোকাদ্দেস বলেন, মাদকের ব্যাপারে সরকার জিরো টলারেন্স। মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের কোন ভাবেই ছাড় দেয়া হবে না।
ইউনিয়ন যুব লীগের আহব্বায়ক ফারুখ হোসেন পিল্টু ও ছাত্রলীগ নেতা শেখ ইমরান হোসেন জানান, খেশরা ইউনিয়ন থেকে মাদক নির্মুল করতে আমরা বদ্ধ পরিকর। মাদক সংশ্লিষ্টদের সাথে কোন আপোষ নেই। মাদকসহ তাদেরকে যেখানে পাওয়া যাবে, ধরে পুলিশে দেয়া হবে। এলাকার সাধারন জনগন মাদকের গ্রাস থেকে এলাকাকে মুক্ত করতে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য যে, নিউজের জন্য গোপন ক্যামেরায় এ ছবি ধারন করতে গিয়ে মাদকাসক্তদের আক্রোশের স্বীকার হন এ প্রতিবেদক ও প্রতিবেদক সহযোগি ।