মহানবীর বিরুদ্ধে কিছু বললেই ব্যবস্থা নেয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের ও সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর বিরুদ্ধে কেউ কিছু বললে বা কুটুক্তি করলেই কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। আমি আল্লাহ ছাড়া আমি কাউকে ভয় করি না।

 

আজ ৪ নভেম্বর রবিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে হাইআতুল উলইয়া আয়োজিত শুকরানা মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক অপপ্রচার হয়। কোনও অপপ্রচার বিশ্বাস করবেন না। এই উপমহাদেশে কওমী শিক্ষা ধারাই হলো প্রথম শিক্ষা ব্যবস্থা। তাই দ্বীনি শিক্ষার মানুষেরা এদেশে কোনোদিন অবহেলিত হবেন না। কওমী শিক্ষার্থীদের দাঁড়াতে সরকার সব রকম সহায়তা করবে। আর সত্যিকার ইসলামে বিশ্বাসীরা সন্ত্রাসী হয় না। যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে, তারা ইসলামে বিশ্বাস করে না। তাদের কোন ধর্ম নাই।

 

তিনি বলেন, টঙ্গীতে যে বিশ্ব ইজতেমা হয় সেটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান করেছিলেন। ওআইসির স্বীকৃতি লাভ তার সময়ে হয়েছিল। তিনি কওমী শিক্ষার্থীদের স্বীকৃতি দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু সেটা করতে পারেননি। ১৯৭৫ সালে আমি পরিবারের সবাইকে হারিয়েছি। ১৯৭৭ সালে যারা ক্ষমতায় এসেছিল তারা কওমীর স্বীকৃতি দেওয়ার পথ বন্ধ করে দিয়েছিল। আমি অবাক হয়েছিলাম।