ভোলায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে শুরু হয়েছে ৩ দিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা

এম শাহরিয়ার জিলন, ভোলা: ভোলায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শুরু হয়েছে ৩ দিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা। মেলা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারী) সকালে ভোলা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে বর্ণাঢ্য একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে ভোলা সরকারি স্কুলের মাঠে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে সরকারি, বে-সরকারি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল কলেজে শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহাবুদ্দিন খান, জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মমিন টুলু, জেলা আ’লীগের ১নং যুগ্ম-সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকীব, সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব প্রমুখ।
পরে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মেলা চলবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত। এই মেলার মাধ্যমে জনসাধারণের সামনে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরা হবে। মেলায় জেলার বিভিন্ন সরকারি, বে-সরকারি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পৃথক পৃথক শতাধিক স্টল অংশ নেয়। সব সরকারি, আধাসরকারি ও বেসরকারি সংস্থার পক্ষ থেকে দর্শনার্থীদের সামনে নিজেদের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরা হবে। একই সঙ্গে সরকারি সংস্থার সেবাগুলোও দেওয়া হবে।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুলে ধরা হবে দেশের মুক্তিযুদ্ধ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের বিভিন্ন দিক। প্রতিদিন বিকালে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়াও রয়েছে আলোচনা সভা, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কুইজ, বিতর্ক ও রচনা প্রতিযোগিতা।
ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিন জানায়, ‘উন্নয়নের রোল মডেল শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ মূলমন্ত্রকে ধারণ করে ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। ‘২০০৮ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত দেশে অনেক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড হয়েছে। গত ১৩ বছরের এসব অগ্রগতি ও উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরা হবে এবারের মেলায়।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধিন বর্তমান সরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্ষ্যে ১০টি বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণের ঘোষণার মাধ্যমে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এগুলো হলো- একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প, আশ্রয়ন প্রকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচি, নারীর ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, সবার জন্য বিদ্যুৎ, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, কমিউনিটি ক্লিনিক ও মানসিক স্বাস্থ্য, বিনিয়োগ উন্নয়ন ও পরিবেশ সংরক্ষণ। এবারের মেলায় এসব বিষয়ের ওপর হবে বিশেষ প্রদর্শনী থাকবে।

Inline
Inline