ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ৮ কিলোমিটার এলাকা অপরাধমুক্ত ঘোষণা

বনগাঁ (ভারত), ৯ মার্চ, ২০১৮ : এই প্রথমবারের মতো ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ৮ দশমিক ৩ কিলোমিটার এলাকাকে ‘অপরাধমুক্ত এলাকা’ ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) এবং ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ) আজ এই ঘোষণা দেয়।
পশ্চিমবঙ্গের ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ সীমান্ত এলাকায় কালিয়ানী বিওপিতে ৬৪ বিএসএফ ব্যাটালিয়ন আয়োজিত এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেয়া হয়।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে, বাংলাদেশের যশোর- ১ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন, বিজিবির বিদায়ী মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, বিএসএফ-এর মহাপরিচালক (ডিজি) কে কে শর্মা উপস্থিত ছিলেন।
যশোরের পুটখালী ও দৌলতপুর বিওপি এবং ভারতের কালিয়ানী ও গুনারমাথ বিওপি’র আওতাভূক্ত ৮ দশমিক ৩ কিলোমিটার সীমান্ত এলাকাকে এই অপরাধমুক্ত এলাকা বলে ঘোষণা করা হয়।
এই এলাকাকে অপরাধমুক্ত রাখাতে উভয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী ইতোমধ্যেই সীমান্ত পাহারায় ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা, সার্চ লাইট ও থার্মাল ইমেজার স্থাপন করেছে।
বাংলাদেশ ও ভারতের কিছু এলাকা অপরাধমুক্ত রাখার ধারণাটি প্রথমে দেন বিজিবি’র বিদায়ী প্রধান মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, অপরদিকে থেকে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী প্রধান কে কে শর্মা স্বাগত এই উদ্যোগ কে স্বাগত জানান।
বাংলাদেশ ও ভারতের ৪১৫৬ কিলোমিটার দীর্ঘ অভিন্ন সীমান্ত এলাকা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে এসব এলাকাকে অপরাধমুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা দেয়া হবে।